মেয়েদের হাতে মোবাইল না দিতে ডেপুটি স্পিকারের আহবান

Fazle Rabbi Mia
Share Button

১৬ বছরের নিচে মেয়েদের হাতে মোবাইল ফোন না দেয়ার জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বি মিয়া।

শুক্রবার রাঙ্গামাটি সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

নারীদের সুশিক্ষিত হয়ে দেশ গঠনের আহ্বান জানিয়ে মো. ফজলে রাব্বি মিয়া বলেন, উন্নয়নে নারীদের প্রাধান্য দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি শিক্ষার জন্য এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের ক্ষেত্রে নারীদের জন্য ৬০ ভাগ কোটা সংরক্ষণের নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় বলেন- ধর্ম যার যার রাষ্ট্র ও উৎসব সবার। শেখ হাসিনার আন্তরিকতায় আজ পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ও সম্প্রীতি এসেছে।

ডেপুটি স্পিকার বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতিকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। আর এখন দেশকে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তার সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

১৯৭৪ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ রাঙ্গামাটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়টি সরকারিকরণের ঘোষণা দিয়েছিলেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু পিছিয়ে পড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে শিক্ষার উন্নয়নে ব্যাপক পরিকল্পনা হাতে নিয়েছিলেন। তার ধারাবাহিকতায় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী পার্বত্য চট্টগ্রামে বিভিন্ন উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপন এবং প্রতি উপজেলায় একটি করে কলেজসহ স্কুলগুলো জাতীয়করণের আওতায় এনেছেন।

ফজলে রাব্বি বলেন, শেখ হাসিনা যখন প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন, তখনই পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ফিরিয়ে আনতে একটি জাতীয় কমিটি করেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা ভারতের ত্রিপুরার আগরতলা, খাগড়াছড়ি ও ঢাকায় অনেক বৈঠক করি। অবশেষে ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর স্বাক্ষরিত পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তির মধ্য দিয়ে বর্তমানে পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ফিরে এসেছে।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমৃদ্ধশীল দেশ ও জাতি গঠনে পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশবাসীকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান ডেপুটি স্পিকার।

এর আগে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে দুদিনব্যাপী সুবর্ণজয়ন্তীর বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করেন ফজলে রাব্বি মিয়া।

জেলা প্রশাসক ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. মানজারুল মান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু, সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালকুদার, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান তরুণ কান্তি ঘোষ, পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান, সেনাবাহিনীর সদর জোন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল রিদোয়ান-উল হক।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উদযাপন কমিটির সদস্যসচিব ও বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক সরিৎ কুমার চাকমা।

অনুষ্ঠানে প্রায় বিদ্যালয়টির প্রাক্তন ও বর্তমান ছাত্রী, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাসহ আমন্ত্রিত অতিথি, শিক্ষক, ও অভিভাবকরা উপস্থিত অংশ নেন।

রাঙ্গামাটি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে শুক্রবার সকালে শহরের প্রধান সড়কে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান কার্যালয় ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ গিয়ে শেষ করা হয়।

শনিবার সকালে সম্মাননা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা ওরফে সন্তু লারমা।

উল্লেখ্য, ১৯৬৬ সালে শহরের তবলছড়িতে প্রতিষ্ঠিত রাঙ্গামাটি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৭৪ সালে সরকারিকরণ হয়।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts