রদবদল আসছে মন্ত্রিসভায়, ১২ জনের একটি তালিকা প্রধানমন্ত্রীর হাতে

Cabinate Metting
Share Button

শিগগিরই রদবদল আসছে মন্ত্রিসভায়। আর রদবদলে আসতে পারে বেশ কিছু নতুন মুখ। মন্ত্রিসভার রদবদলকে মাথায় রেখে বেশ কিছু তথ্য সংগ্রহ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দলীয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
সূত্র জানায়, প্রায় ১২ জনের একটি তালিকা প্রধানমন্ত্রীর হাতে রয়েছে। ৮টি বিভাগ থেকে বিভিন্ন মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করে তৈরি করা হয়েছে এই তালিকা। তালিকা প্রণয়নের ক্ষেত্রে জনপ্রিয়তা, জনসম্পৃক্ততা, দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে সম্পৃক্ততা ও উন্নয়নের বিষয়গুলো গুরুত্ব পেয়েছে।

সূত্র আরো জানায়, ডিসেম্বরে জাতীয় সংসদের অধিবেশনের আগেই মন্ত্রিসভার রদবদল হতে পারে। যদি অধিবেশনের আগে সম্ভব না হয় তাহলে প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর শেষে রদবদল হবে। নতুন মুখ হিসেবে যুক্ত হওয়ার পাশাপাশি মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়তে পারেন কয়েকজন।
জানা গেছে, বিভিন্ন সময়ে বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার অভিযোগে মন্ত্রিসভা থেকে ছিটকে পড়তে পারেন ৩ মন্ত্রী। আর বার্ধক্যজনিত কারণে মন্ত্রী সভা থেকে একজন মন্ত্রী অবসর পেতে পারেন। নতুন মুখ হিসেবে মন্ত্রিসভায় যুক্ত হতে যাওয়ারা প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পাবেন। আর মন্ত্রিসভায় থাকা কারো কারো মন্ত্রণালয় পরিবর্তন হতে পারে। সেক্ষেত্রে যে সকল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে শুধু প্রতিমন্ত্রী রয়েছে সে সকল মন্ত্রণালয়ে পূর্ণমন্ত্রী আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

সরকার ও আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল মহলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মন্ত্রিসভায় নতুন মুখ আনার ক্ষেত্রে যে সকল জেলায় আওয়ামী লীগের কোন কেন্দ্রীয় নেতা বা সরকারের কোন মন্ত্রী নেই সেই সকল জেলাকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। দলীয় পদ-পদবি নেই তবে দলের জন্য নিবেদিত প্রাণ ও অভিজ্ঞতা সম্পন্ন রাজনীতিক হিসেবে পরিচিতদের মূল্যায়ন করা হতে পারে।

বিভিন্ন সূত্রের দাবি অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীর হাতে থাকা তালিকায় পঞ্চগড়, দিনাজপুর, জয়পুরহাট, নওগাঁ, চাঁদপুর জেলার একজন করে নেতার নাম রয়েছে। আর বাদ পড়তে পারেন এমন তালিকায় রয়েছেন ময়মনসিংহ, ঢাকা ও গাজিপুর থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্যর নাম।
সরকার ও আওয়ামী লীগকে পৃথক করার প্রক্রিয়া হিসেবে মন্ত্রিসভায় থাকা আটজন দলের বিভিন্ন পদ থেকে বাদ পড়েছেন অক্টোবর অনুষ্ঠিত জাতীয় সম্মেলনের মাধ্যমে।

আওয়ামী লীগের একটি সূত্রের দাবী, এ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে দলে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পাওয়া দুই একজন মন্ত্রীকে দফতরবিহীন করা হতে পারে। গত ২৮ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের নব-গঠিত কমিটির সভাপতিমণ্ডলীর সভা শেষে এমন ইঙ্গিতই দিয়েছিলেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
তিনি বলেন, শিগগিরই মন্ত্রিসভায় রদবদল আনা হবে। কবে এ পরিবর্তন আনা হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts