বঙ্গবন্ধু হত্যার জন্য আ.লীগ দায়ী : জাসদ

বঙ্গবন্ধু হত্যার জন্য আ.লীগ দায়ী  আবদুর রব
Share Button

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার জন্য আওয়ামী লীগই দায়ী বলে দাবি করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক আ স ম আবদুর রব।

সোমবার (১৪ জুন) জাসদ নিয়ে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের বক্তব্যের প্রদিবাদ জানিয়ে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতে এ মন্তব্য করেন তিনি। গতকাল এক অনুষ্ঠানে জাসদকে একটি ‘হঠকারী’ সংগঠন আখ্যা দিয়ে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের বক্তব্য অগ্রহণযোগ্য-অন্যায্য ও অনভিপ্রেত। বঙ্গবন্ধু হত্যার জন্য আওয়ামী লীগই দায়ী। আওয়ামী লীগের দলীয় ভুল রাজনীতি বঙ্গবন্ধুকে দলীয় আবর্তে বন্দী করে, উপনিবেশিক শাসনের বেড়াজালে আবদ্ধ করে-জনগণ থেকে ক্রমাগত বিচ্ছিন্ন করে, মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিয়েছিল।’

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর আওয়ামী লীগই সরকার গঠন করে। ৩২ নং ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধুর লাশ রেখে আওয়ামী লীগ নেতারাই মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করে। আওয়ামী লীগ নেতাদের নির্দেশেই জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করা হয় এবং সেই সরকারই দেশে প্রথম সামরিক শাসন জারি করে। এসব সত্য এবং ভুল রাজনীতি আওয়ামী লীগের স্বীকার না করাই হবে অতিমাত্রায় ভন্ডামী।’

রব বলেন, ‘সশস্ত্র যুদ্ধের পর ‘‘বিপ্লবী সরকার’’ গঠন না করে শুধু আওয়ামী দলীয় সরকারের কারণে একাত্তরে গড়ে ওঠা জাতির লৌহ কঠিন ঐক্যকে ভেঙে দেয়া হয়। রাজনৈতিক সংকটকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা না করে রক্ষীবাহিনীসহ বিভিন্ন বাহিনী দিয়ে অতিরিক্ত বল প্রয়োগ করে রাজনৈতিক সঙ্কটকে তীব্র করা হয়। রাজনীতি নিষিদ্ধকরণ, সংসদের মেয়াদ বৃদ্ধির মত অগণতান্ত্রিক পদক্ষেপ ও একদলীয় বাকশাল গঠন করে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরিবেশ সৃষ্টি করেছিলো।’

প্রসঙ্গত, গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে ছাত্রলীগ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সৈয়দ আশরাফ বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার ক্ষেত্র তৈরি করেছিল জাসদ। এদের কারণেই দলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়িত হয়নি। দেশের অগ্রগতি বাধাগ্রস্ত হয়েছে। আবার তাদের মধ্য থেকে একজনকে মন্ত্রী করা হয়েছে। এর প্রায়শ্চিত্ত আজীবন আওয়ামী লীগকে করতে হবে।’

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts