বিএনপিকে ভোট দেওয়ায় গৃহবধূকে গণধর্ষণ!

Rape logo 1
Share Button

ধানের শীষে ভোট দেওয়ায় শার্শায় এক গৃহবধূ (৩০) গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার গভীর রাতে শার্শা উপজেলার গোগা ইউনিয়নের আমলাই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতিতা গৃহবধূকে আজ সোমবার দুপুরে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি সাংব‍াদিকদের জানান, গত ৪ জুন অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে তার স্বামী ও তিনি চেয়ারম্যান পদে বিএনপির প্রার্থী সরোয়ার হোসেনকে ধানের শীষ প্রতীকে ভোট দেন। এ কারণে সেদিনই তাদের ওপর হামলার চেষ্টা করে মেম্বার শামসুজ্জামান বুলুর লোকজন। এ কারণে তারা সেইদিন থেকেই বাড়িছাড়া ছিলেন।

রোববার সন্ধ্যায় তারা বাড়ি ফেরেন। এরপর রাতে বুলুর সহযোগী সেকেন্দার, সবুজ, জাহাঙ্গীর, কাইছেদসহ ৭-৮ জন মিলে তাদের বাড়িতে এসে তার স্বামীকে মারধর করার পর তাকে ধর্ষণ করে।

সরোয়ার হোসেন জানান, ভোটের দিন বুথে ঢুকে নৌকার সমর্থক আওয়ামী লীগ কর্মী শামসুজ্জামান বুলুর লোকজন ওই গৃহবধূর সিল দেওয়া ব্যালট পেপার দেখে। তার তখনই তাদেরকে শাসায়। এই ঘটনার পর থেকে ওই পরিবারের লোকজন বাড়িছাড়া ছিলেন। পরে গৃহবধূকে ধর্ষণের বিষয়টি তিনি সোমবার বেলা ১১টার দিকে জানতে পারেন।

যশোর জেনারেল হাসপাতালে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. ইউসুফ আলী বলেন, ভিকটিম দাবি করেছেন তিনি গণধর্ষণের শিকার। কিন্তু পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়া এখনও কিছু বলা যাচ্ছে না।

শার্শা থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, ঘটনাটি তিনি এই প্রথম শুনলেন। এ বিষয়ে কেউ কোন প্রকার অভিযোগ থানায় দেননি বলে জানান তিনি।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts