মামলার ভয়ে কথা বলেন না মওদুদ

মামলার ভয়ে কথা বলা ছেড়ে দিয়েছেন মওদুদ
Share Button

মামলার হওয়ার আশংকায় কথা বলা ছেড়ে দিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

বৃহস্পতিবার বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, আমি কথা বলা ছেড়ে দিয়েছি। কে শুনবে আমার কথা। কথা বললে আরও দু’চারটা মামলা দিবে।

এ সময় নিজেদের মধ্যে ঐক্য অটুট রাখার আহ্বান জানান বিএনপির এ জ্যেষ্ঠ নেতা।

তিনি বলেন, আমাদের মধ্যে যেন কোন বিভেদের সুর না হয়। ঐক্যবদ্ধ হয়ে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে।

অবসরে গিয়ে রায় লিখে সংবিধান লংঘনের দায়ে বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হককে বিচারের সম্মুখীন করা হবে বলে সভায় মন্তব্য করেন ব্যারিস্টার মওদুদ।

তিনি বলেন, ১৬ মাস পর দেওয়া পুর্ণাঙ্গ রায়ের আদেশে বিচারপতি এবিএম খায়রুল হক আগেকার ঘোষণার অংশটি সম্পূর্ণভাবে বাদ দিয়েছেন। এ রায়ের মাধ্যমে তিনি শুধু সংবিধানই লংঘন করেন নাই, তিনি দেশের প্রধান বিচারপতি হয়ে একটি চরম অনৈতিকতার পরিচয় দিয়েছেন।

সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দীন আহমেদ বীর বিক্রম বলেন, দেশে আইনের শাসন নেই। শাসক দলের লোকেরা গুম-খুন করে যাচ্ছে। শিশু হত্যা করা হচ্ছে। শিশুদের গুম করে চাঁদা আদায় করা হচ্ছে।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ইসতিয়াক আজিজ উলফাতের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, কল্যান পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মুক্তিযোদ্ধা দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান প্রমুখ।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment