সংসদ নির্বাচনে একাধিক আসনে লড়ার সুযোগ পাচ্ছেন না আ.লীগ নেতারা

আওয়ামী লীগ
Share Button
একাধিক অাসন থেকে নির্বাচন করে জয়ী হওয়ার অতীত ইতিহাস রয়েছে অাওয়ামী লীগ ও বিএনপির একাধিক নেতার। অাওয়ামী লীগ প্রধান শেখ হাসিনা, বিএনপি প্রধান বেগম খালেদা জিয়া ও জাতীয় পার্টির প্রধান এইচএম এরশাদ একাধিকবার পাঁচটি  অাসন থেকে নির্বাচন করেছেন। খালেদা জিয়া ও এরশাদ পাঁচটি অাসন থেকেই বারবার জয়ী হয়েছেন। শেখ হাসিনা তিনটি অাসন থেকে বারবার জয়ী হয়েছেন।
অতীতে এক ব্যক্তি সর্বাধিক পাঁচটি অাসন থেকে নির্বাচন করতে পারতেন। কিন্তু নবম সংসদ নির্বাচন থেকে পাঁচটির পরিবর্তে তিনটি অাসনে নির্বাচন করতে পারবেন এমন বিধান করা হয়েছে।
নবম সংসদ নির্বাচনে শেখ হাসিনা ও খালেদা জিয়া তিনটি অাসনে নির্বাচন করে জয়ী হয়েছিলেন। অতীতে অাওয়ামী লীগ নেতা প্রয়াত অাব্দুস সামাদ অাজাদ, অামির হোসেন অামু, প্রয়াত অাব্দুর রাজ্জাক, তোফায়েল অাহমেদ, মোহাম্মদ নাসিম একাধিক অাসনে দলীয় মনোনয়নে নির্বাচন করেছেন।  অামির হোসেন অামু ছাড়া অন্য নেতারা একাধিক অাসন থেকে একাধিকবার জয়ী হয়েছেন।
মানবতাবিরোধী অপরাধে ফাসিঁতে মৃত্যুবরনকারী
বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী, কর্নেল(অব) অলি অাহমেদ, সাবেক অর্থমন্ত্রী প্রয়াত এম সাইফুর রহমান দলীয় মনোনয়নে একাধিক অাসন থেকে নির্বাচন করেছেন। সাইফুর রহমান ও অলি অাহমেদ একাধিক অাসন থেকে জয়ী হয়েছেন।
গত দশম সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়নি বিএনপি। তবে শেখ হাসিনা ছাড়া দলটির কোনো নেতাকেই একাধিক অাসনে মনোনয়ন দেয়নি অাওয়ামী লীগ। অাগামী নির্বাচনেও শেখ হাসিনা অন্য শীর্ষ নেতারা একের অধিক অাসনে মনোনয়ন পাবেন না বলে জানা গেছে।
এছাড়া এক পরিবার থেকে একাধিক সদস্যকেও মনোনয়ন দেবে না অাওয়ামী লীগ। একাধিক সূত্র মতে, দলটির সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম এবং তার ছেলে সাবেক এমপি তানভীর শাকিল জয় দুজনে দুইটি অাসন থেকে নির্বাচন করতে অাগ্রহী। ঢাকা-১৬ অাসনের এমপি ইলিয়াস উদ্দীন মোল্লার বড় ভাই এখলাস উদ্দীন মোল্লা ঢাকা -১৫ অাসন থেকে অাওয়ামী লীগের মনোনয়নে নির্বাচন করতে অাগ্রহী। মাদারীপুর-১ অাসনের এমপি নুরে অালম লিটন চৌধুরী এবং ফরিদপুর-৪ অাসনের এমপি মজিবুর রহমান চৌধুরী অাপন ভাই। গত নির্বাচনে মজিবুর রহমান চৌধুরী স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে অাওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহকে পরাজিত করে এমপি হয়েছেন। এখন তিনি অাওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছেন। অাগামী নির্বাচনে অাওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে চেষ্টা করছেন তিনি।
একাধিক অাসনে অতীতে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচন করেছিলেন এমন এক অাওয়ামী লীগ নেতা বলেন, সভানেত্রী যে সিদ্ধান্ত নেবেন সেটি মেনে নিব। দলকে ক্ষমতায় অানতে যদি তিনি মনে করেন প্রভাবশালী কোনো নেতাকে প্রার্থী করবেন না তা যে কেউ মেনে নেবেন বলে বিশ্বাস করি।
নোনয়ন দেওয়ার অতীত ইতিহাস থাকলেও

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts