সরকার গোলামির পথ বেঁচে নিয়ে গদি রক্ষায় ব্যস্তঃ খালেদা জিয়া

khaleda-zia

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, ‘ঢাকার রাজপথেও ওলামা মাসায়েখ, হাফেজ ও মাদরাসার গরীব শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের রক্ত ঝরেছে। সেই ত্যাগ যেন বৃথা না যায়। লোভ ও ভয় যেন আপনাদের ঈমান নষ্ট না করে। আপনারা যারা ইসলামী ঐক্যজোটের পতাকা সমুন্নত রেখেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ।’

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) বিকেলে রমনাস্থ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোটের জাতীয় কাউন্সিলে দেয়া প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বেগম জিয়া বলেন, ‘বাংলাদেশের স্বাধীকার ও স্বাধীনতা সংগ্রামেও আলেম সমাজ পিছিয়ে ছিলেন না। স্বাধীন দেশের মানুষের অধিকার ও ইনসাফ কায়েমের জন্য অকাতরে জীবন দিতেও পিছপা হননি ধর্মপ্রাণ মানুষেরা। আগামীতেও আপনাদের সে ভূমিকা অব্যাহত থাকবে বলে দেশবাসী আশা করে।’

খালেদা জিয়া আরো বলেন, ‘দেশের সঙ্কট নিরসনে এবং গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের প্রতিনিধিত্বশীল সরকার প্রতিষ্ঠার জন্য আমরা সকলের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার আহ্বান জানিয়েছি। বল এখন শাসক দলের কোটে। তারা সংঘাতের পথ চেড়ে সংলাপের পথে সমস্যার সমাধান করবে বলে আশা করি।’ দেশের চরম সঙ্কট উত্তরণে আলেম সমাজকে ঐক্যবদ্ধ ও সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘জাতীয় স্বার্থ রক্ষায় ক্ষমতাশীনদের কোনো উদ্যোগ নেই। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশকে বিচ্ছিন্ন ও বন্ধুহীন করে ফেলা হয়েছে। বন্ধুত্বের বদলে সরকার গোলামির পথ বেঁচে নিয়ে গদি রক্ষায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘ধর্মপ্রাণ মানুষ ও আলেম সম্প্রদায় নানাভাবে নিগৃহিত ও হেনস্থার শিকার হচ্ছেন। অন্য ধর্মের লোকদেরও কোনো নিরাপত্তা নেই। এখন যারা ক্ষমতায় আছে তারা অন্য ধর্মের নাগরিকদের ভোটই শুধু চায় না, তাদের সহায় সম্পদও তারা দখল করে নিতে চায় এবং নিচ্ছে। এ অবস্থা থেকে মানুষ মুক্তি চায়। সুস্থ স্বাভাবিক পরিবেশ ফিরে পেতে চায়।’

সম্মেলনে বিএনপির নব নির্বাচিত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতারা বক্তব্য রাখেন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment