ইংল্যান্ড সফরেই পাকিস্তান দলে ফিরছেন সালমান বাট!

ইংল্যান্ড সফরেই পাকিস্তান দলে ফিরছেন সালমান বাট!
Share Button

লর্ডস টেস্টে স্পট ফিক্সিং কেলেংকারির পর ক্রিকেটে আর ফেরা হয়নি পাকিস্তানি ওপেনার সালমান বাটের। তার সাথে জড়িয়ে পরেছিলেন তার দুই সতীর্থ মোহাম্মদ আমির এবং মোহাম্মদ আসিফ।

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ইতোমধ্যে জাতীয় দলে ফিরেছেন বাঁহাতি পেসার মোহাম্মদ আমির। এবার সালমান বাটকেও দলে ফেরানোর ব্যপারে মত দিলেন পাকিস্তানের টেস্ট অধিনায়ক মিসবাহ উল হক।

আসন্ন ইংল্যান্ড সফরেই তাকে দলে চাইছেন মিসবাহ। বাট প্রসঙ্গে মিসবাহ বলেন, ‘আমাদের তিন থেকে সাত নম্বর পর্যন্ত ব্যটিং-অর্ডারে নির্ভরতা এলেও ওপেনিংয়ে সমস্য রয়েই গেছে।

মোহাম্মদ হাফিজের সঙ্গে শান মাসুদ ও বাটকে দিয়ে চেষ্টা করা যেতে পারে। যদিও ২০১০ এ দল থেকে ছিটকে যাওয়ার পর আমি বাটের খেলা দেখিনি। কিন্তু সম্প্রতি ঘরোয়া ক্রিকেটে সে চমৎকার করেছে। ও বেশ অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। কিভাবে ফেরানো যায়, আমাদের সেটি ভাবতে হবে।’

তবে ইংল্যান্ড সিরিজেই তাকে দলে পাওয়াটা আদৌ সম্ভব হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েই গেছে। কেননা আগামী ১০ বছর সালমান বাটকে ইংল্যান্ডের ভিসা দেয়া হবে না বলে জানিয়েছে অভিবাসন ও প্রশাসন কর্তৃপক্ষ।

স্পট ফিক্সংয়ের জন্য বাটকে জেলও খাটতে হয়। আর জেল খাটা কোন ভিনদেশীর ইংল্যান্ডে প্রবেশ করার ক্ষেত্রে রয়েছে অনেক জটিলতা। যদিও নিউজিল্যান্ড সফরে আমিররের প্রত্যাবর্তনের সময়েও একই রকম সমস্যা তৈরি হয়েছিল।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের আন্তরিক প্রচেষ্টায় সেই সমস্যা কাটিয়ে উঠেছিল তারা।

পাকিস্তান ন্যাশনাল ওয়ানডে কাপে ১০৭.২০ গড়ে ৫৩৬ রান করেছেন বাঁহাতি ওপেনার। তার দল ওয়াটার এ্যান্ড পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট অথরিটির হয়ে সাত ইনিংসে বাটের স্কোর যথাক্রমে ১৩৫, ৯৯*, ৬, ৩০, ৮১*, ৯৫ ও ৯০!

গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে বাটের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হয়। সতীর্থদের প্রায় সকলের কাছে নিজের কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন সালমান বাট। সালমান বাট বলেন, ‘অনেকে অনেক কিছু বলবে, এটাই স্বাভাবিক। আমি ক্ষমা চাইছি।

মাঠে পারফর্ম করেই ফের জাতীয় দলে জায়গা করে নিতে চাই।’

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts