একমাত্র এই ছেলেটিই কোহলিকে হারাতে পারবে!

একমাত্র এই ছেলেটিই কোহলিকে হারাতে পারবে!
Share Button

চলতি আইপিএল-এর অন্যতম সেরা আকর্ষণ এখন এই ১৮ বছরের বালক সরফরাজ। দেশের ক্রিকেট মহল তো বটেই, তাকে নিয়ে ক্রিস গেইল, এবি ডি ভিলিয়ার্সের মতো ব্যাটসম্যারাও উচ্ছ্বসিত।

সবার ভাষ্যমতে, ক্রিকেট তারকা হওয়ার সব মশলা মজুত তার মধ্যে। মুম্বইয়ের বাসিন্দা এই ক্রিকেটারের পুরো সরফরাজ নওসেদ খান।

মাত্র ১২ বছর বয়সে মুম্বইয়ের হ্যারিস শিল্ডে ৪৩৯ রানের ইনিংস খেলে নতুন রেকর্ড গড়েছিলেন সরফরাজ। এখনও পর্যন্ত প্রথমশ্রেণীর মাত্র ছ’টা ম্যাচ খেলেছেন তিনি। কিন্তু দু’টো আইপিএল খেলা হয়ে গিয়েছে তাঁর।

মাত্র ১৭ বছর বয়সে ২০১৫ সালে আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে অভিষেক হয়েছিল সরফরাজের।

আইপিএল-এর মতো মেগা মঞ্চে খেলতে নেমে চাপে ঘাবড়ে যাওয়া দূরে থাক, দ্বিতীয় ম্যাচেই ২১ বলে ৪৫ রানের ইনিংস খেলে চমকে দেন তিনি। চলতি মৌসুমেও আইপিএলে সফল বলতে হবে সরফরাজকে।

ব্যাটিং অর্ডারে সরফরাজ বেশ নিচের দিকে নামেন। ফলে ২০ ওভারের খেলায় সাধারণত খুব বেশি বল পান না তিনি।

তার উপরে দলে রয়েছেন বিরাট কোহলি, এবি ডেভিলিয়ার্স, ক্রিস গেইল, শেন ওয়াটসনের মতো মহাতারকারা। তা সত্ত্বেও এবছর আইপিএলের প্রথম ম্যাচে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে তার ১০ বলে ৩৫ রানের অপরাজিত ইনিংস দেখে অনেকেই মুগ্ধ।

ব্যাকরণ মেনে যেমন ক্রিকেটীয় শট খেলতে পারেন, তেমনই টি-২০ ফর্ম্যাটের জন্য বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে অভিনব সব শট খেলতেও তিনি সিদ্ধহস্ত।

বিরাট কোহলির পরে অনেক আশা জাগিয়ে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসে সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি উন্মুক্ত চাঁদ। এবছরই অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব করা ইশান কিষানও আইপিএলে সুযোগ পেয়েছেন। কিন্তু সবাইকে ছাপিয়ে গিয়েছেন সরফরাজ।

ক্রিস গেইল প্রথম ম্যাচে সরফরাজের বিধ্বংসী ব্যাটিং দেখে বলেন, সরফরাজ আমার ছেলের মতো। সরফরাজ যে সবার থেকে আলাদা, তা অনুর্ধ্ব-১৯ দলে তার কোচ রাহুল দ্রাবিড়ও স্বীকার করে নিয়েছেন।

ঘরোয়া ক্রিকেটেও সরফরাজকে নিয়ে টানাটানি শুরু হয়ে গিয়েছে। মুম্বাইয়ের হয়ে রঞ্জিতে অভিষেক হয়েছিল সরফরাজের। ২০১৫-র জুলাই মাসে বোর্ড কর্তা রাজীব শুক্লর উদ্যোগে উত্তর প্রদেশের হয়ে খেলা শুরু করেন সরফরাজ।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts