ক্যাচ মিসেই হারলো বাংলাদেশ

ক্যাচ মিসেই হারলো বাংলাদেশ

* ৬ষ্ঠ ওভারে বল করতে এসেছিলেন মুস্তাফিজ। শেষ বলেই ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন শেন ওয়াটসন। অনেক ওপরে উঠলেও জায়গায় দাঁড়িয়ে থেকে ক্যাচটা মিস করে ফেললেন মোহাম্মদ মিঠুন।
* ১৮তম ওভার। বল করছেন সাকিব আল হাসান। তৃতীয় বলে ক্যাচ তুলে দিলেন জন হাস্টিংস। সহজ ক্যাচটা তালুতে নিয়েও ছেড়ে দিলেন আল আমিন হোসেন।
* ৫ম বলেই রান আউটদের দারুণ সুযোগ। মিস করে ফেললেন মুশফিক। এরপরের বলেই আউট হলেন হাস্টিংস।

তিনটি ক্যাস মিস আর রানআউটের সুযোগ মিসই নয়। পুরো ম্যাচেই খুবই বাজে ফিল্ডিং করেছে বাংলাদেশ। যে বাউন্ডারিটা আটকানো যেতো, সেটাকে আটকাতে পারলো না। এভাবেই একের পর এক ক্যাচ মিস আর মিস ফিল্ডিংয়ের খেসারত দিতে হলো বাংলাদেশকে।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দারুণ এক জয়ের সম্ভাবনা থাকলেও ক্যাচ মিস আর মিস ফিল্ডিংয়ের কারণে জয়টা পেলো না বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত ৩ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়ে বিশ্বকাপে জয়ে ফিরল অস্ট্রেলিয়া।

প্রথম ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে গিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। বাংলাদেশ হেরেছিল পাকিস্তানের কাছে। এই ম্যাচটি ছিল দু’দলের সামনেই সেমিতে টিকে থাকার জন্য দারুণ এক সুযোগ। কিন্তু সুযোগটা হেলায় হারিয়ে ফেললো বাংলাদেশ।

ক্যাচগুলো মিস না হলে, ফিল্ডিংগুলো যথাযথভাবে করতে পারলে নিশ্চিতই দুর্দান্ত জয়টা পেয়ে যেতেন মাশরাফিরা; কিন্তু, সুযোগগুলো কাজে লাগাতে না পেরে পরাজয়কেই বরণ করে নিতে হলো টিম বাংলাদেশকে।

অথচ ১৫৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুটা দারুণ করলেও মুস্তাফিজ, আল-আমিন এবং সাকিব আল হাসানের বোলিংয়ে বিপদেই পড়ে গিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। ইনিংসের মাঝপথে এই তিন বোলারের দারুণ বোলিংয়ে অসাধারণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল বাংলাদেশ।

প্রথমে মুস্তাফিজ বোল্ড করলেন স্মিথকে। এরপর উসমান খাজাকে বোল্ড করলেন আল আমিন। ডেভিড ওয়ার্নারকে রিটার্ন ক্যাচে পরিণত করেন সাকিব আল হাসান। শেষ দিকে ক্যাচ আর মিস ফিল্ডিংগুলো না হলে বাংলাদেশই জিততো।

এর আগে অস্ট্রেলিয়ার সামনে ১৫৬ রানের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েও শুরু থেকে স্বস্তি পাচ্ছিলো না বাংলাদেশ। দুই ওপেনার উসমান খাজা এবং শেন ওয়াটসন মিলে অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে যায় সহজ জয়ের দ্বারপ্রান্তেই। ১৫৬ রান যেন অস্ট্রেলিয়ার কাছে মামুলিই মনে হচ্ছিলো।

তবে, খেলার অষ্টম ওভারে এসে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম উইকেটের পতন ঘটায় বাংলাদেশ। শেন ওয়াটসনকে রানআউট করে ফেরান সাব্বির রহমান এবং মুশফিকুর রহিম। তার আগেই অবশ্য ৬ষ্ঠ ওভারের শেষ বলেই ক্যাচ তুলেছিলেন শেন ওয়াটসন।

মুস্তাফিজের বলে আকাশে ওঠা ক্যাচটি তালুবন্দি করতে ব্যর্থ হন মোহাম্মদ মিঠুন।

দলীয় ৬২ রানে আউট হন ওয়াটসন। এ সময় ১৫ বলে ২১ রান করেন তিনি। ওয়াটসন আউট হলেও এক প্রান্তে ঝড় তুলে যান উসমান খাজা। ইতিমধ্যে হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করে ফেলেছেন তিনি। অপর ব্যাটসম্যান হিসেবে রয়েছেন স্টিভেন স্মিথ।

উসমান খাজা আউট হন ৪৫ বলে ৫৮ রান করে। ২৬ রান করেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ওয়াটসন করেন ২১ রান।

বাংলাদেশের বোলার সাকিব আল হাসান ৩টি, মুস্তাফিজ ২টি এবং আল আমিন নেন ১টি উইকেট।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment