টাইগারদের ভাল ব্যাটিংয়ের রহস্য আগের রাতে পাপনের সঙ্গে বৈঠক

নাজমুল হাসান পাপন-বিসিবি সভাপতি
Share Button

কলম্বো টেস্টের প্রথম দিনটা পুরোপুরিই ছিল বাংলাদেশের। দ্বিতীয় দিনও প্রায় নিজেদের করে নিয়েছিল তামি-সৌম্যরা; কিন্তু দিনের একেবারে শেষ মুহূর্তে এসে হঠাৎ ঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে পড়ে বাংলাদেশের ব্যাটিং। চার ওভারে পড়ে তিন উইকেট। তবুও শেষ মুহূর্তে ব্যাট করতে নেমে এলোমেলো খেলেন সাকিব আল হাসান। যেন উইকেটটা বিলিয়ে দিতেই নেমেছিলেন তিনি। অন্তত দু’বার জীবন পেয়েছিলেন তিনি।

শেষ বিকেলের ঝড় আর সাকিবের এমন ব্যাটিংয়ের কারণে চারদিকে তীব্র সমালোচনার সৃষ্টি হয়। একের পর এক সমালোচনার তীরে সাকিবকেই সবচেয়ে বেশি বিদ্ধ করতে থাকেন সমালোচকরা। বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং কোচ থিলান সামারবিরাও সংবাদ সম্মেলনে এসে সাকিবের এমন ব্যাটিংয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেন। লঙ্কান সেঞ্চুরিয়ান ব্যাটসম্যান দিনেশ চান্দিমালও বলেছিলেন, বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা বেশি শট খেলতে পছন্দ করে।

এমন পরিস্থিতিতে তৃতীয়দিন প্রয়োজন ছিল সাকিবসহ বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের ধীরস্থির ব্যাটিং। সেটাই শেষ পর্যন্ত করে দেখাতে পারলেন সাকিব, মুশফিক এবং মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতরা। তাদের দৃঢ়তায় বাংলাদেশের রান শেষ পর্যন্ত গিয়ে পৌঁছালো ৪৬৭ রানে। লিড নিলো ১২৯ রানের। বিদেশের মাটিতে যা বাংলাদেশের সেরা লিডের ঘটনা।

দ্বিতীয় দিনের শেষ বিকেলের সঙ্গে তৃতীয় দিনের ব্যাটিংয়ের কোনো মিল নেই। পুরোপুরি উল্টো। হঠাৎই যেন বদলে গেলেন সাকিব আল হাসান। মুশফিক তো এমনিতেই টেস্টে ধীর-স্থির ব্যাটিং করেন। সঙ্গে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত অভিষেকেই যে দৃঢ়তার পরিচয় দিলেন- তার রহস্য আসলে কী। এই গুঞ্জন দেখা গেছে সর্বত্র। বাংলাদেশের ব্যাটিং, বিশেষ করে সাকিবের ব্যাটিং এভাবে বদলে যাওয়ার মূল রহস্য আসলে কী?

খোঁজ নিয়ে জানা গেলো এর আসল রহস্য। দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে টিম হোটেল তাজ সমুদ্রে গিয়ে রাত ১০টার দিকে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে বৈঠক করেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বাংলাদেশ দলের একটি বিশ্বস্ত সূত্র জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, ‘আগেরদিন রাত ১০টায় দলের সঙ্গে বসেছিলেন বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। খেলোয়াড়দের সঙ্গে অত্যন্ত আন্তরিক পরিবেশে কথা বলেন তিনি।’

সূত্রটি জানিয়েছে, ‘খেলোয়াড়দেরকে কখনও কখনও মৃদু ভাষায় অনুশাসনও করেছেন তিনি। সবাইকে ভালো খেলার জন্য জোর তাগিদ দিয়েছেন। বলেছেন, আরেকটু গা লাগিয়ে খেলতে।’

আজ সারাদিনে সাকিবের ব্যাটিং দেখেই মনে হয়েছে, কোনো কারণে সে বাড়তি সচেতন তিনি। এরপরই জানা গেলো তাদের সঙ্গে আগের রাতে বোর্ড প্রেসিডেন্টের বৈঠকের সংবাদ। সেখানে হয়তো সাকিব-মুশফিকদের প্রতি কোনো বার্তা ছিল নাজমুল হাসান পাপনের। যার ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে আজকের পারফরম্যান্সে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts