টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের রেকর্ড

bd-cricket

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বুধবার অনন্য রেকর্ড গড়েছে বাংলাদেশ। পাকিস্তানের বিপক্ষে ৫ উইকেটে জয় পাওয়া বাংলাদেশ অতিরিক্ত রান না দেয়ার রেকর্ড গড়ল। এর আগে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এরকম ঘটনা ঘটেনি।

এশিয়া কাপের ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে হোম অব ক্রিকেট মিরপুরে পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামে মাশরাফি বাহিনী। এদিন টস জিতে টাইগারদের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন পাকিস্তান দলের অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি।

ফিল্ডিং করতে নেমে শুরু থেকেই দারুণ মুনশিয়ানার পরিচয় দেয় বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা। বিশেষ করে বাংলাদেশের বোলারদের তোপের মুখে পড়ে পাকিস্তানের ওপেনিং জুটি এবং মিডল অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা।

প্রথম ১০ ওভারে মাত্র ৩৪ রান দিয়ে পাকিস্তানের ৪টি উইকেট তুলে নেন বাংলাদেশের বোলাররা। প্রথম ১০ ওভারে মাত্র ৩৪ রান যেকোনো দলের বিপক্ষে পাকিস্তানের সর্বনিম্ন স্কোর এটি। এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১০ ওভারে ৩৫ রান সংগ্রহ করেছিল পাকিস্তান।

তবে শেষ ১০ ওভারে শোয়েব মালিক এবং সরফরাজের ব্যাটে ৯৫ রান করে আফ্রিদি বাহিনী। তবে টাইগারদের বোলিং এবং ফিল্ডিং প্রশংসার দাবি রাখে। কেননা ১২৯ রানের মধ্যে একটিও অতিরিক্ত রান নেই।

বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে সবথেকে কম রান দিয়েছেন তাসকিন আহমেদ। ৪ ওভার বল করে মাত্র ১৪ রান দিয়ে নেন ১টি উইকেট। তবে উইকেট নেয়ার দিক দেয়া সফল বোলার আল আমিন এবং আরাফাত সানি। আল আমিন ৩টি এবং আরাফাত সানি নেন ২টি উইকেট। এছাড়া মাশরাফি নেন অন্য উইকেটটি। ১৩০ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই আক্রমনাত্মক ছিল টাইগারদের ব্যাটিং। ৫ বল বাকি থাকতেই ৫ উইকেট হারিয়ে ১৩১ রান করে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের বোলাররা কোনো অতিরিক্ত রান না দিলেও পাকিস্তানের বোলাররা ৮টি অতিরিক্ত রান দিয়েছেন।

আন্তর্জাতিক টি২০ ক্রিকেটে সর্বোচ্চ অতিরিক্ত রান দেয়ার রেকর্ড রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের। ২০০৮ সালে জোহানেসবার্গে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তারা দিয়েছিল ২৯টি অতিরিক্ত রান।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের এশিয়া কাপে ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে মাত্র ২ রানে হেরে শিরোপা হাতছাড়া হয়েছিল টাইগারদের। তবে এবার সেই হারের প্রতিশোধ নিয়ে ফাইনালে উঠলো বাংলাদেশ। ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হবে টাইগাররা।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment