টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে পাকিস্তান

টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে পাকিস্তান

হিসাবটা করাই ছিল। পোর্ট অব স্পেনে যদি ওয়েস্ট ইন্ডিজ আর ভারতের টেস্ট ম্যাচটি ফল না দেখে, কোনভাবে ড্র হয় কিংবা ভারত হেরে যায়, তাহলে টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থান থেকে নেমে যাবে ভারত। নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারেরমত শীর্ষে উঠে যাবে পাকিস্তান।

হিসেবটার যোগ-বিয়োগ, গুণ-ভাগ সবই ঠিক ঠিক মিলে গেলো। সুতরাং, ফল যা হবার তাই হলো। টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে উঠে গেলো মিসবাহ-উল হকের পাকিস্তান। যারা সদ্য সমাপ্ত সিরিজে ইংল্যান্ডের মাটিতে তাদেরকেই জিততে দিলো না। সিরিজ ড্র করেছে ২-২ ব্যবধানে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে আগেই টেস্ট সিরিজ জিতে নিয়েছিল ভারত। তবে ত্রিনিদাদের পোর্ট অব স্পেনে সিরিজের চতুর্থ এবং শেষ টেস্টে বিরাট কোহলির ভারত ওয়েস্ট ইন্ডিজের মোকাবেলা করতে নেমেছিল টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষস্থানটি ধরে রাখার জন্যই; কিন্তু নিয়তির ওপর তো আর কারো হাত নেই। সুতরাং, টেস্টের প্রথম দিন ২২ ওভার খেলা হওয়ার পর আর একটি বলও মাঠে গড়াতে পারেনি মাঠে।

আজ পঞ্চম দিন এসেও যখন দেখা গেলো ভারি বর্ষণের কারণে পোর্ট অব স্পেন ওভালের আউটফিল্ড পুরোপুরি পানিতে ভরা। খেলার মত উপযোগি তো মোটেও নয়। এমনকি সারাদিন চেষ্টা করেও পারা যাবে না একে খেলার উপযোগি হিসেবে গড়ে তুলবে। সুতরাং, ম্যাচ রেফারি রঞ্জন মাদুগালে শেষ দিনের খেলাও বাতিল ঘোষণা করতে বাধ্য হন। ফলে ম্যাচটি নিষ্প্রাণ ড্রতেই শেষ হলো।

এই ড্রয়ের ফলে টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থান থেকে নেমে গেলো ভারত এবং শীর্ষে উঠে গেলো পাকিস্তান। মিসবাহ-উল হকদের রেটিং পয়েন্ট ১১১। আর পোর্ট অব স্পেন টেস্ট খেলতে নামার আগে ভারতের ছিল ১১২। বৃষ্টিতে ড্র হয়ে যাওয়ার ফলে তাদের রেটিং পয়েন্ট কমে গেলো ২। এখন ১১০। ১০৮ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। সমান পয়েন্ট হলেও ভগ্নাংশের ব্যবধানে চতুর্থস্থানে ইংল্যান্ড।

শ্রীলংকার কাছে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার কারণে অস্ট্রেলিয়া শীর্ষস্থান থেকে এক লাফে নেমে আসে তৃতীয়স্থানে। এ কারণেই মূলতঃ ভারত শীর্ষে উঠতে পেরেছিল; কিন্তু পোর্ট অব স্পেনে বৃষ্টি তাদের সেই শীর্ষস্থানটা কেড়ে নিয়ে দিলো পাকিস্তানকে।

২০১৪ সাল থেকেই টেস্ট সিরিজে অপরাজিত পাকিস্তান। এর মধ্যে তারা অস্ট্রেলিয়াকে ২-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করেছে। শ্রীলংকাকে হারিয়েছে ২-১ ব্যবধানে। বাংলাদেশের বিপক্ষে ২ ম্যাচের সিরিজে জিতেছে ১-০ ব্যবধানে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে জিতেছে ১-০ ব্যবধানে। সর্বশেষ ইংল্যান্ডের সঙ্গে তাদেরই মাটিতে ৪ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ড্র করেছে ২-২ ব্যবধানে।

শীর্ষে ওঠার আনন্দে অবশ্যই উদ্বেলিত পাকিস্তান অধিনায়ক মিসবাহ-উল হক। তবে, খুব বেশি উচ্ছসিত তিনি নন। কারণ, টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে উঠতে পারার আনন্দের চেয়ে একে ধরে রাখা এবং ভালো পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারাটাই হচ্ছে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, ‘এক নম্বরে উঠে যাওয়াটাই আমাদের শেষ লক্ষ্য নয়। কারণ, এখান থেকে আমাদের জার্নিটা শুরু হলো মাত্র। আমাদের দীর্ঘ সময়ের উদ্দেশ্য এবং কৌশল হলো, প্রতিদ্বন্দ্বীতায় থাকা এবং নিজেদের সেরা হিসেবে প্রমাণ করা। এই জায়গায় উঠে এখন আমাদের চ্যালেঞ্জ এবং দায়িত্বটা বেড়ে গেলো।’

চলতি বছরই বেশ কয়েকবার টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষস্থানটা পরিবর্তণ হয়েছে। জানুয়ারিতেই ইংল্যান্ডের কাছে ২-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ফলে টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থানটি চলে আসে ভারতের দখলে। এরপর ফেব্রুয়ারিতে শীর্ষস্থানটা আবার দখলে নেয় অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়ে। মাত্র ৬ মাস শীর্ষস্থান ধরে রাখতে পেরেছিল অস্ট্রেলিয়া। এরপর শ্রীলংকার কাছে ৩-০ ব্যবধানে হারের ফলে সেটা চলে গেলো ভারতের কাছে। মাত্র ৬দিনের ব্যবধানে আবার ভারতকে সরিয়ে শীর্ষে উঠে এলো পাকিস্তান।

টেস্ট দলগুলোর র‌্যাংকিং

পাকিস্তান (১১১ রেটিং পয়েন্ট), ভারত (১১০), অস্ট্রেলিয়া (১০৮), ইংল্যান্ড (১০৮), নিউজিল্যান্ড (৯৯), শ্রীলংকা (৯৫), দক্ষিণ আফ্রিকা (৯২), ওয়েস্ট ইন্ডিজ (৬৭), বাংলাদেশ (৫৭), জিম্বাবুয়ে (৮)।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts