তবুও খুশি মাশরাফি

ভেবেছিলেন মুস্তাফিজ সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হবে, কিন্তু বল তো ব্যাটেই লাগে না : মাশরাফি
Share Button

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে ঘরোয়া ক্রিকেট সব জায়গায়ই সাফল্যের ছাপ মাশরাফি বিন মর্তুজার। বাংলাদেশের অধিনায়কদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সাফল্য দেখিয়েছেন তিনি। অথচ ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে বেশিরভাগ ক্লাবই মাশরাফিকে দলে নিতে আগ্রয় দেখায়নি। শেষ পর্যন্ত কলাবাগান ক্রীড়া চক্র দলে ভিড়িয়েছে এই তারকাকে। এতে মাশরাফি মোটেও হতাশ নন, বরং কলাবাগান নিয়েই খুশি তিনি।

বিশ্বকাপের মিশন শেষে কাশ্মীর ঘুরতে গিয়েছিলেন মাশরাফি। সেখান থেকে শুক্রবার দেশে ফেরেন। একদিন পরই দলের সঙ্গে অনুশীলনে নেমেছেন। দলের অনেক ক্রিকেটারকেই তিনি চেনেন না। তাদের সঙ্গে পরিচিতি হতে শুরু করছেন।

গত ১০ এপ্রিল প্রিমিয়ার লিগের প্লেয়ার্স ড্রাফট অনুষ্ঠিত হয়। এতে অধিকাংশ ক্লাব মাশরাফিকে এড়িয়ে যান। শেষের দিকে কলাবাগান ক্রীড়া চক্র তাকে দলে নেয়। মাশরাফি এটা অপমান বা অবজ্ঞা হিসেবে দেখছেন না।

সর্বশেষ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগেও (বিপিএল) মাশরাফিকে প্রথমে কোনো দল নিতে চায়নি। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স তাকে দলে নিলেও জানিয়েছিল, তিনি প্রথম পছন্দ ছিলেন না। কিন্তু মাশরাফির নেতৃত্বে নড়বড়ে দল নিয়ে প্রথম মৌসুমেই চ্যাম্পিয়ন হয় কুমিল্লা।

এ নিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘এ বিষয়গুলো আমাকে সব সময় উৎসাহ দেয়। আমি বিপিএল-এর প্রথম নিলামে অবিক্রিত থাকি। পরে ঢাকা গ্লাডিয়েটরস আমাকে দলে নেয়। শেষ বিপিএলেও কুমিল্লা যখন আমাকে দলে নেয়, তখনও অনেক কথা হয়েছিল। আমি তাতে রাগান্বিত হইনি বরং আমি মাঠে নিজেকে প্রমাণ করতে চেয়েছিলাম।’

গত মৌসুমে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে মোহামেডানের হয়ে ১৮ উইকেট নিয়েছিলেন মাশরাফি। ব্যাট হাতে করেছিলেন ২৩৫ রান। এবার মোহামেডান সুযোগ পেয়েও মাশরাফিকে এড়িয়ে যায়। ক্লাবটি মুশফিকুর রহিমকে বেছে নেয়। এটাকে মাশরাফি অনুপ্রেরণা হিসেবে দেখেন।

জাতীয় দলের ওয়ানডে ও টি২০ অধিনায়ক বলেন, ‘আবাহনী বা মোহামেডান ছাড়া অন্য কোনো ক্লাবে খেললে এই উদ্দীপনা তৈরি হয়। একটি চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করাটা অনেক আনন্দের বিষয়। এটা আমার জন্য সেরকম একটা কিছু। গত কয়েক বছর আগে সিটি ক্লাবের হয়ে কয়েক ম্যাচ ও ইন্দিরা রোড ক্রীড়া চক্রের হয়ে একটি ম্যাচ বাদে আমি সব সময় আবাহনী, বাংলাদেশ বিমান ও মোহামেডানের মতো বড় ক্লাবগুলোতে খেলেছি।’

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts