তাসকিন দেশে ফিরেছেন

taskin-ahmed

অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের দায়ে আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ে বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেছে পেসার তাসকিন আহমেদের। তবুও আশা নিয়ে দলের সাথে ছিলেন তাসকিন। তবে সেই স্বপ্নও বাস্তবায়নের কোন সম্ভাবনা না থাকায় দেশে ফিরলেন এই পেসার।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দলের সাথেই ছিলেন তাসকিন। এরপর দুপুরের ফ্লাইটে কলকাতা যান। সেখান থেকে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় ঢাকা পৌঁছান তিনি।

উল্লেখ্য, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচে বাংলাদেশের পেসার তাসকিন আহমেদ এবং স্পিনার আরাফাত সানির বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন দুই অনফিল্ড আম্পায়ার এস রবি এবং রড টাকার। এর পরদিন আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে অভিযোগ তোলে আইসিসিও।

এরপর গত ১২ মার্চ সানি ও ১৫ মার্চ তাসকিন চেন্নাই বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োমেকানিক্যাল সেন্টারে বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা দিয়ে আসেন। সানির পরীক্ষার ফলাফল এক সপ্তাহ পর দিলেও তাসকিনের ফলাফল পাওয়া যায় চার দিনের মাথায়। এতে নিষিদ্ধ হন দু’জনই।

পরে তাসকিন আহমেদের বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষার প্রক্রিয়াগত বিভিন্ন ত্রুটি তুলে ধরে আইসিসিকে মেইল করে জানিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে আইসিসির পক্ষ থেকে কোন ইতিবাচক সাড়া না পাওয়ায় নিয়মানুযায়ী জুডিশিয়াল কমিশনারের কাছে রিভিউয়ের জন্য আবেদন করে বিসিবি।

এরই ধারাবাহিকতায় শুনানি শেষে তাসকিন আহমেদের বোলিংয়ে নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখে আইসিসি জুডিশিয়াল কমিশন। বুধবার (২৩ মার্চ) আইসিসির অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment