পাকিস্তানেও দেওয়া যাবে বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা

PCB-Logo

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষার জন্য বায়োমেকানিক্স সুবিধা সমৃদ্ধ একটি নতুন ল্যাব নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু করেছে।

লাহোর ইউনিভার্সিটি অফ ম্যানেজমেন্ট সায়েন্সের (এলইউএমএস) সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে এটি নির্মাণ করা হবে। আগামী তিন বছরে তাদের কাছে সরবরাহ করা হবে ৪ লাখ ৬০ হাজার মার্কিন ডলার মূল্যের যন্ত্রপাতি।

এরকম একটি ল্যাব ২০০৮ সালে নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। কেনা হয়েছিল বেশকিছু প্রয়োজনীয় সামগ্রীও। সেগুলো দীর্ঘ ৮ বছর অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে দেশটির ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমিতে। আগামী জুন মাসে লাহোর বিশ্ববিদ্যালয়ে নবনির্মিত ল্যাবে সেগুলো কাজে লাগানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

মূল প্রজেক্টটি পরিচালিত হবে এলইউএমএস ইঞ্জিনিয়ারিং ল্যাবরেটরির পরিচালক আহমেদ কামালের তত্ত্বাবধানে। পিসিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই ল্যাবটি ভারতের চেন্নাইয়ের চেয়ে অনেক বেশি আধুনিক সরঞ্জাম সমৃদ্ধ হবে।

এ পর্যন্ত বোলিং অ্যাকশনজনিত কারণে সবচেয়ে বেশি ভুগতে হয়েছে পাকিস্তানকেই। সাইদ আজমলের মতো দুর্দান্ত বোলাররা অ্যাকশন শুধরে ফিরে আসলেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আগের সেই প্রভাব বিস্তার করতে পারেননি। মোহাম্মাদ হাফিজের মতো ক্রিকেটারকেও মাঠের বাইরে থাকতে হয়েছে এক বছর।

সারা বিশ্বে বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষাগার হিসেবে পরিচিত আইসিসি অনুমোদিত ল্যাব রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেন, ভারতের চেন্নাই, যুক্তরাজ্যের কার্ডিফ, ইংল্যান্ডের লফবুর্গ ও দক্ষিণ আফ্রিকার প্রিটোরিয়ায়। বিভিন্ন সময়ে এগুলো সমালোচিত হয়েছে তাদের দেওয়া ফলাফলের কারণে।

তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ক্ষেত্রে মাঠে কোনো বোলারের অ্যাকশন নিয়ে আম্পায়াররা সন্দেহ প্রকাশ করলে এই ল্যাবগুলোর যেকোনো একটিতেই বোলিংয়ের বৈধতার পরীক্ষা দিতে হয় বোলারদের।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts