বাংলাদেশকে নিয়ে আইসিসির ষড়যন্ত্র ফাঁস!

Bangladsh-cricket

আইসিসির পূর্নরুপ কি? এতদিন ধরে যেটি জেনে এসেছি খুব সম্ভব সেটি তো ভুলই জেনে এসেছি। বাংলাদেশকে নিয়ে আইসিসির নানা ষড়যন্ত্রেও খবর ফাঁস, আর তাতে দুর্গন্ধ পাচ্ছি আমি। বড় জানতে ইচ্ছে হয় আইসিসির আসল পরিচয়। বাংলাদেশের সাথে আইসিসি যে অনিয়ম করেছে ইতিহাসে সেটি বিরল।

কোনো ভালো বোলারকে দেখে যে কোনো অজুহাতে নিষিদ্ধ করার বর্বর নিয়ম চালু করেছে আইসিসি। বিসিবি সভাপতি সবকিছু জেনেশুনে ও বুঝে মুখ খুলেছেন।

তিনি বলেছেন, তাসকিন একটি বলও অবৈধভাবে করেনি। শুধু তারা বলছে তাসকিনের প্রত্যেকটি বলই সন্দেহজনক। নাজমুল হাসান পাপন ঠিকই বলেছেন। দেখা গেছে মাঠের কোনো বোলিংয়ে তার কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু প্রতি বলে সন্দেহ খুঁজে পায় তারা। এই অভিযোগে বাংলাদেশের সেরা পেসার তাসকিনকে নিষিদ্ধ করা হয়।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশ যাতে ভালো করতে না পারে এই লক্ষ্যই ছিল আইসিসির। আইসিসির ভণ্ডামির রহস্য ফাঁস হয়েছে এর মাধ্যমে।

ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের ক্রিকেট ম্যাচ নিয়েও কলঙ্কের সৃষ্টি করেছে আইসিসি। ভারত সময় নেয় ১১০ মিনিট। অন্যদিকে বাংলাদেশ সময় নেয় ১০৪ মিনিট। সেখানে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের শাস্তি দেয়া হয়। মাশরফিকে নির্বাসিত করা হবে মর্মেও খবরের সৃষ্টি করা হয়। ভারতের শাস্তি হয় না।

এর আগে ২০১৪ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ ও ভারতের ম্যাচ নিয়ে আইসিসি যা করেছে সেটি সবারই জানা আছে। তৎকালীন আইসিসি সভাপতি আ হ ম মুস্তফা কামালের সাথে প্রতিষ্ঠানটির সে সময়ের চেয়্যারম্যান শ্রী নায়ারণ যা করেছে সেটিও হয়তো মনে পড়ছে সবার।

মুস্তফা কামালকে সেদিন আইসিসির কক্ষ থেকে বের করে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়। পরে পদত্যাগ করেন তিনি। এই হলো আইসিসির মূল চরিত্র। ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক এই প্রতিষ্টানটি এভাবে বিতর্কিত হবে তা ভাবতেও পারিনি কখনো। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট লড়াইকে রক্ষার জন্য আইসিসিতে আমূল পরিবর্তন দরকার।

বিসিবিকে এই লক্ষে পদক্ষেপ নেয়া দরকার। আইসিসির বিভিন্ন পদে বাংলাদেশের লোকবল বৃদ্ধি করা খুবই প্রয়োজন বলে আমি মনে করি। আইসিসিতে চাকুরির জন্য বিভিন্ন পদ রয়েছে সেখানে বাংলাদেশের যুবকদের অংশ গ্রহণের হার বাড়ানো দরকার।

ক্রিকেট বিশ্বের সবদেশকে ঐক্যবদ্ধ করার সময় এসেছে। তা না হলে হারিয়ে যেতে পারে ক্রিকেটের এত উল্লাস। আইসিসি স্বচ্ছ না হলে স্বাদহীন হয়ে পড়বে ক্রিকেট।

একটি প্রতিষ্টান তার মূলধারা হারিয়ে ফেললে সে অন্যায়ের পথে হাঁটতে থাকে। আইসিসিকে আন্তর্জাতিক জাগরণের মাধ্যমে এখনই শুদ্ধ করা দরকার। এই উদ্যোগ নিতে পারেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment