বিশ্বকাপের সেরা একাদশে মুস্তাফিজ

বিশ্বকাপের সেরা একাদশে মুস্তাফিজ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুপার টেনের সবগুলো খেলা ইতমধ্যেই শেষ হয়েছে। ভারত, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিউজিল্যান্ড এবং ইংল্যান্ড প্রস্তুত সেমিফাইনালে লড়াইয়ের জন্য। তবে এরই মধ্যে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট cricket.com.au নির্বাচন করেছে এবারের বিশ্বকাপের সেরা একাদশ, যেখানে বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে রয়েছেন কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। নিউজিল্যান্ড থেকে এই একাদশে আছেন সর্বোচ্চ ৩ জন ক্রিকেটার।

চলুন তবে দেখে নেয়া যাক কারা আছেন এই একাদশে।

ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)

সেরা একাদশের ওপেনার হিসেবে আছেন টি-টোয়েন্টির সেরা বিজ্ঞাপন, ক্যারিবীয় ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল। ৩ ম্যাচে ২ ইনিংস ব্যাট করে ১০৪ গড়ে করেছেন ১০৪ রান। যার মধ্যে রয়েছে সুপার টেনে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৪৮ বলে অপরাজিত ১০০ রানের একটি দুর্দান্ত ইনিংস। বোলিংয়েও নিয়েছেন ২ উইকেট। ব্যাটিংয়ে তার স্ট্রাইক রেট ২০৮!

মার্টিন গাপটিল (নিউজিল্যান্ড)

ক্রিস গেইলের সাথে ওপেনিং জুটিতে থাকছেন নিউজিল্যান্ডের মারমুখো ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিল। ৩ ম্যাচ খেলে ৪১.৬৬ গড়ে তার মোট রান ১২৫। ভারতের রবিচন্দ্র অশ্বিনের বলে ছক্কা মেরে টুর্নামেন্ট শুরু করা গাপটিলের স্ট্রাইক রেট ১৬২.৩৩। সর্বোচ্চ রান করেছেন পাকিস্তানের বিপক্ষে ৪৮ বলে ৮০।

বিরাট কোহলি (ভারত)

এই একাদশের তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামবেন ভারতের বিরাট কোহলি। ৪ ম্যাচে ৯২ গড়ে তিনি মোট রান করেছেন ১৮৪। বিশ্বকাপ টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তার সর্বোচ্চ ৫১ বলে ৮২ রানের ওপর ভর করেই সেমিফাইনালে উঠে যায় ভারত। এখন পর্যন্ত কোহলির স্ট্রাইক রেট ১৩২.৩৭।

জো রুট (ইংল্যান্ড)

চার নম্বরে ব্যাট করতে নামবেন এখনই ইংল্যান্ডের সর্বকালের অন্যতম সেরা আখ্যা পেয়ে যাওয়া জো রুট। ৪ ম্যাচে ৪২ গড়ে তার মোট রান ১৬৮। টুর্নামেন্ট সেরা স্কোর ৪৪ বলে ৮৩ রানের বিধ্বংসী ইনিংস। যার ওপর ভর করে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২২৯ রানের বড় সংগ্রহ টপকে জয় লাভ করে ইংল্যান্ড। তার স্ট্রাইক রেট ১৫০।

জস বাটলার (ইংল্যান্ড)

চার ম্যাচে ১৫১.৮৫ স্ট্রাইক রেটে তার মোট রান ১২৩। মিডল অর্ডারে তার দায়িত্বশীল ব্যাটিং নজর কেড়েছে আলাদাভাবে। ইংলিশ এই ব্যাটসম্যান সর্বোচ্চ ৩৭ বলে ৬৬ রান করেন শ্রীলংকার বিপক্ষে। টুর্নামেন্টে তার গড় রান ৪১।

শেন ওয়াটসন (অস্ট্রেলিয়া)

শেন ওয়াটসনই এই একাদশের একমাত্র পুরোদস্তুর অল-রাউন্ডার। ৪ ম্যাচে ১৫০ স্ট্রাইক রেটে তার মোট রান ৯৬। সর্বোচ্চ পাকিস্তানের বিপক্ষে ২১ বলে ৪৪ এবং গড় ৪৮। এছাড়াও বোলিংয়ে ৭.৩৫ ইকোনমি রেটে পেয়েছেন ৫ উইকেট।

মহেন্দ্র সিং ধোনি (ভারত)

বিশ্ব টি-টোয়েন্টির সেরা একাদশের অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন ভারতের ধোনি। ৪ ম্যাচে ৭৪ গড়ে তার রান ৭৪, স্ট্রাইক রেট ১২১.৩১। সর্বোচ্চ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৩০। উইকেটের পেছনে ধরেছেন ৪টি ক্যাচ এবং করেছেন সমসংখ্যক স্ট্যাম্পিং। কঠিন পরিস্থিতে (বিশেষত বাংলাদেশের বিপক্ষে) তার অধিনায়কত্ব ছিল প্রশংসনীয়।

মিচেল সান্তনার (নিউজিল্যান্ড)

একাদশে যে তিনজন স্পিনার আছেন তার মধ্যে অন্যতম চমক সান্তনার। ৪ ম্যাচে ৫.৭৩ ইকোনমিতে নিয়েছেন ৯টি উইকেট। তার সেরা বোলিং ফিগার ভারতের বিপক্ষে ১১ রানে ৪ উইকেট।

ইশ সোধি (নিউজিল্যান্ড)

সান্তনারের সাথে তার অসাধারণ বোলিংই নিউজিল্যান্ডের টুর্নামেন্টের একমাত্র দল হিসেবে অপরাজিত থাকার মূলমন্ত্র। ৪ ম্যাচে মাত্র ৪.৯৭ ইকোনমিতে পেয়েছেন ৮ উইকেট। ভারতের বিপক্ষে ১৮ রানে ৩ উইকেট ছিল তার সেরা বোলিং ফিগার।

স্যামুয়েল বদ্রি (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)

চার ম্যাচে ৬ উইকেট, এই পরিসংখ্যান দিয়ে তার পুরোপুরি মাহাত্ম্য বুঝা না গেলেও তার ইকোনমি ছিল ৫.৪৬। শ্রীলংকার বিপক্ষে ১২ রানে ৩ উইকেট তার সেরা বোলিং ফিগার। বলে তেমন টার্ন না থাকলেও নির্দিষ্ট লাইন-লেন্থে বল করার অসাধারণ দক্ষতা দিয়ে এই ক্যারিবীয় বোলার সবার নজর কেড়েছেন।

মুস্তাফিজুর রহমান (বাংলাদেশ)

এখন পর্যন্ত এবারের বিশ্বকাপের সেরা বোলিং ফিগার মুস্তাফিজের (৫/২২) বাংলাদেশের মুস্তাফিজুর রহমানের, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। ৪ ম্যাচে ৭.১৬ ইকোনমিতে নিয়েছেন ৯ উইকেট। তিনিই বাংলাদেশ থেকে স্থান পাওয়া একমাত্র ক্রিকেটার এবং এই একাদশের একমাত্র পেস স্পেশালিস্ট।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment