ভেবেছিলাম মুস্তাফিজ সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হবে, কিন্তু বল তো ব্যাটেই লাগে না : মাশরাফি

ভেবেছিলেন মুস্তাফিজ সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হবে, কিন্তু বল তো ব্যাটেই লাগে না : মাশরাফি
Share Button

বাংলাদেশ ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেছেন, আইপিএলে মুস্তাফিজের পারফরম্যান্স অবশ্যই প্রত্যাশিত ছিল। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেই বড় বড় ব্যাটসম্যানরা হিমশিম খেয়েছে ওকে পড়তে। আইপিএলে তো চারজন বিদেশি, সাতজন ভারতীয়। সেখানে আরও ভালো করারই কথা। আইপিএল শুরুর আগেই একটি সাক্ষাৎকারে আমি বলেছিলাম, মুস্তাফিজ সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হবে, অন্তত সেরা তিনে থাকবেই। আমি এখন সেদিকেই তাকিয়ে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আবির্ভাবের পর থেকেই যিনি বিস্ময় ছড়িয়ে যাচ্ছেন, আলোড়ন তুলেছেন চলতি আইপিএলেও সেই মুস্তাফিজুর রহমানের ভেতর-বাহির, প্রতিভা-সামর্থ্য, শঙ্কা-সম্ভাবনা, সব কিছু নিয়েই স্থানীয় একটি জনপ্রিয় অনলাইন পত্রিকায় একান্তে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিন এসব কথা বলেন।

আইপিএলে যতটা দারুণ বোলিং করছে, উইকেট তত বেশি পায়নি মুস্তাফিজ। এ প্রসঙ্গে মাশরাফি বলেন, আমি আশা করেছিলাম, এর মধ্যেই ওর অন্তত একবার ৪-৫ উইকেট হয়ে যাবে। কিন্তু উইকেট পাবে কী, সবাই এমনভাবে পরাস্ত হয়, ব্যাটেই তো লাগে না বল! বার বার পরাস্ত হচ্ছে। ম্যাককালামের মত ব্যাটসম্যানও কিছুই বুঝতে পারেনি!

তিনি বলেন, ওকে সতর্কভাবে খেলার ব্যাপার তো আছেই। উইকেট পাওয়া ভাগ্যেরও ব্যাপার। হয়ত সামনেই এক ম্যাচে অনেক উইকেট পেয়ে যাবে। আমার বিশ্বাস, সামনে আরও ভালো করবে। আগেই বলেছি, সেরা তিনে দেখার আশা করছি।

মাশরাফি বলেন, আমি খুব করে অপেক্ষায় ছিলাম, এবি ডি ভিলিয়ার্সের সামনে মুস্তাফিজ কেমন বোলিং করে। জানতাম, কোনো ব্যাটসম্যান ওকে ঠিকভাবে খেলতে পারবে না। তবে সেট হয়ে যাওয়া ডি ভিলিয়ার্সের চেয়ে ভয়ঙ্কর ব্যাটসম্যান এই মুহূর্তে বিশ্ব ক্রিকেটে আর কেউ নেই।

তিনি আরো বলেন, সেই ডি ভিলিয়ার্সকেই মুস্তাফিজ যখন ২ বলেই আউট করে দিয়েছে, এরপর ওকে নিয়ে আমার আর কোনো সংশয়-প্রশ্নই নেই। এই কারণে ওই উইকেট স্পেশাল। তবে সেরা ডেলিভারি বললে, যেহেতু ওর কাছ থেকে এমন নিখুঁত ইয়র্কার অনেকেই আশা করেনি এবং ব্যাটসম্যান বল ঠেকাতে গিয়ে পড়েই গেছে, সব মিলিয়ে আন্দ্রে রাসেলের উইকেটিই।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts