মাশরাফির কাছে সরি বললেন শুভাশিষ!

মাশরাফি বিন মুর্তজা ও শুভাশিষ রয়ে

বুধবার চিটাগং ভাইকিংস বনাম রংপুর রাইডার্সের ম্যাচে সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা মাশরাফি বিন মুর্তজা ও শুভাশিষ রয়ের বাদানুবাদ। এ ঘটনায় শুভাশিষের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেন অনেকে। তবে বুধবার রাতেই মাশরাফি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়ে উতপ্ত পরিস্থিতি ঠান্ডা করেছেন। তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, ‘আমরা আমরাইতো।’

সর্বশেষ খবর, দুজনার মধ্যে আপসরফা হয়ে গেছে। রাতে হোটেলে মাশরাফির রুমে গিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন শুভাশিস। খোদ মাশরফি নিজেই গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন এ তথ্য।

পরে নিজের ফেইসবুক আইডি থেকে লাইভে আসেন শুভাশিষ। তার সাথে ছিলেন চিটাগং ভাইকিংসের সতীর্থ তাসকিন আহমেদ ও এনামুল হক বিজয় ও মাশরাফি বিন মুর্তজা। লাইভে এসেই রসিকতা করে হাসতে থাকেন তাসকিন আর শুভাশিষ। ভিডিওর শুরুতে তাসকিন বলেন, ‘আজ মাঠে একটা ঘটনা ঘটে গিয়েছে যেটা ভুলে হয়ে গিয়েছে।’

এরপর মাশরাফি বলেন, ‘কংগ্রেচুলেশন টু হিম। ইনশাল্লাহ সে বাংলাদেশের হয়ে অনেক ভাল খেলবে সামনে। এ দোয়া আমিও করি, আপনারাও করবেন।’ মাশরাফির কাঁধে হাত দিয়েই দাঁড়িয়ে ছিলেন শুভাশিষ। এরপর মাশরাফিকেও সরিও বলেন তিনি।

উল্লেখ্য, চিটাগং ভাইকিংস বনাম রংপুর রাইডার্সের তখন ১৭ তম ওভার। ম্যাচে টান টান উত্তেজনা। রংপুর রাইডার্সের জয়ের জন্য প্রয়োজন ৩৮ রান। হাতে আছে ২০ বল। ব্যাটিংয়ে মাশরাফি বিন মুর্তজা আর বোলিংয়ে শুভাশিষ রয়। ওভারের চতুর্থ বলে দারুণ এক ইয়র্কার দিয়েছিলেন শুভাশিষ। মাশরাফি ঠেকালেন। ফলো থ্রুতে ফিল্ডিং করে বল থ্রো করতে উদ্যত হন শুভাশিষ। মাশরাফি হাতের ইশারায় শুভাশিষকে ফিরে যেতে বলেন বোলিং প্রান্তে।

তাতে বেশ ক্ষেপে যায় শুভাশিষ। মাশরাফির সামনে তেড়ে যান তিনি। এগিয়ে আসেন মাশরাফি ও তার ব্যাটিংয়ের সঙ্গী সোহাগ গাজী। উইকেটের মাঝে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয় দুজনের মাঝে। তাকে থামাতে এগিয়ে আসেন সতীর্থ তানভীর হায়দার ও সিকান্দার রাজা। শুভাশিষকে যখন নিয়ে যাওয়া হয় তখন প্রতিক্রিয়াহীন ছিলেন মাশরাফি। নির্লিপ্ত দৃষ্টি নিয়ে তাকিয়ে ছিলেন তিনি। যদিও সংবাদ সম্মেলেনেই এসেই মাশরাফি জানিয়েছিলেন সিরিয়াস কিছুই হয়নি।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts