মাশরাফির জন্য আবেগ শ্রীলঙ্কার বোলিং কোচ চম্পকা রামানায়েকের

রামানায়েকে
Share Button

পেশাদার কোচের নাকি আবেগ থাকতে নেই! আজ যে দলের কোচ, কাল তারাই হয়ে যেতে পারে প্রবল প্রতিপক্ষ! শ্রীলঙ্কার বোলিং কোচ চম্পকা রামানায়েকের কথাই ধরুন। ২০০৮ থেকে ২০১০ পর্যন্ত ছিলেন বাংলাদেশের বোলিং কোচ। এখন বাংলাদেশকেই ধসিয়ে দেওয়ার ছক কষতে হচ্ছে তাঁকে।

পেশাদারের কঠিন আবরণে আবেগ তুচ্ছ হলেও বাংলাদেশের জন্য আলাদা ভালোবাসা বরাদ্দ রামানায়কের মনে। বাংলাদেশ তো আছেই। রামানায়কের আবেগ মাশরাফি বিন মুর্তজাকে নিয়েও। আজ সকালে পি সারা ওভালে সংবাদমাধ্যমকে শ্রীলঙ্কার বোলিং কোচ বললেন, সাবেক শিষ্যকে দেখতে তিনি উন্মুখ, ‘মাশরাফিকে খুব পছন্দ করি। ও আমার খুব ভালো বন্ধুও। সে ভালো নেতা, ভালো মানুষ। এতগুলো অস্ত্রোপচারের পরও খেলে যাচ্ছে। যদিও সে শুধু ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলছে। মাশরাফিই আমার দেখা বাংলাদেশের জনপ্রিয়তম ক্রিকেটার। তার সঙ্গে দেখা করতে উন্মুখ হয়ে আছি।’

বেশি অপেক্ষা করতে হবে না রামানায়েকেকে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে ১৮ মার্চ শ্রীলঙ্কায় রওনা দেওয়ার কথা মাশরাফির। তবে তার আগে স্মরণীয় একটি ঘটনা ঘটতে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কায়। কাল পি সারা ওভালে নিজেদের শততম টেস্ট খেলতে নামবে বাংলাদেশ। নিজের সাবেক দলটার ক্রম উন্নতি মুগ্ধই করছে শ্রীলঙ্কান বোলিং কোচকে, ‘বাংলাদেশ দারুণ এগিয়েছে। ১০০ টেস্ট খেলা তো সোজা কথা নয়। ২০০৮-২০১০ সালের দিকে যেমন দেখেছিলাম, এই দল তার চেয়ে অনেক বেশি উন্নতি করেছে। খেলোয়াড়েরা অনেক ভালো করছে। তাদের ভবিষ্যৎ খুব ভালো। বাংলাদেশ অভিজ্ঞ হয়ে উঠছে। বিশেষ করে দেশের মাঠে তারা খুব ভালো ক্রিকেট খেলেছে।’

দেশের মাঠে সাফল্য পেলেও বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশ এখনো হয়ে ওঠেনি সমীহজাগানো দল। ঘরের মাঠের সাফল্য দেশের বাইরেও অনুবাদ করতে রামানায়েকের পরামর্শ, ‘তাদের এখন দেশের বাইরে জিততে হবে। এটা সহজ কোনো ব্যাপার নয়। উপমহাদেশের সব দলই দেশের বাইরে সংগ্রাম করে। বাংলাদেশ ভালো দল। তাদের ধৈর্য ধরতে হবে। একবার তারা আত্মবিশ্বাস পেয়ে গেলে আরও ভালো করবে। জিততে থাকবে। এই মনোভাব অর্জন করতে হবে। তাহলেই সাফল্য পাওয়া যাবে।’

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts