মাশরাফির বিধ্বংসী বোলিংয়ে জয়ের ধারায় ফিরেছে কলাবাগান

মাশরাফির বিধ্বংসী বোলিংয়ে জয়ের ধারায় ফিরেছে কলাবাগান
Share Button

মাশরাফি বিন মর্তুজার বিধ্বংসী বোলিংয়ে ওয়ালটন ঢাকা প্রিমিযার ক্রিকেট লিগে (ডিপিএল) জয়ের ধারায় ফিরেছে কলাবাগান ক্রীড়া চক্র। সোমবার ফতুল্লা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে তারা ১০ রানে হারিয়েছে লিজেন্ড অব রূপগঞ্জকে। এদিন আগে ব্যাট করতে নেমে ৪৯ ওভারে ১৯১ রানে অলআউট হয় রূপগঞ্জ। জবাবে ৩৫.৪ ওভারে ৪ উইকেট কলাবাগান ১২৭ রান তুললে বৃষ্টি শুরু হয়। পরে আর মাঠে বল না গড়ালে বৃষ্টি আইনে ১০ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন রাজ্জাক-মাশরাফিরা।

উভয় দলের এদিন ছিলো লিগের নবম ম্যাচ। নয় খেলা শেষে আট পয়েন্ট নিয়ে সুপার সিক্সের খেলার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখলো কলাবাগান ক্রীড়া চক্র। অপরদিকে এই হারে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ওঠার সুযোগ হাতছাড়া করলো রূপগঞ্জ। নয় ম্যাচ থেকে ১১ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে রূপগঞ্জ।

টস হেরে ব্যাটিং ওপেন করতে নামেন রূপগঞ্জের দুই ওপেনার সৌম্য সরকার এবং শাহিন হোসেন। দুই ওপেনার দ্রুতই ফেরেন। সৌম্য ৭ রানে আর শাহিন ৫ রান করে বিদায় নেন। তিন নম্বরে নামা মোহাম্মদ মিঠুনের ব্যাট থেকে আসে ৩১ রান। ইশাঙ্ক করেন ২০ রান। তবে এদিন রূপগঞ্জের উইকেট পতনের শুরুটা করেন দেওয়ান সাব্বির। ২৫ রানে ৩টি উইকেট নেন এ পেসারও।

দেওয়ান সাব্বির দুই ওপেনারকে বিদায় করলে ধ্বংসযজ্ঞে মেতে ওঠেন মাশরাফি। রূপগঞ্জের অনেক জয়ের নায়ক ইনফর্ম ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুনকে দিয়ে শুরু করেন নড়াইল এক্সপ্রেস। এরপর একে একে মোশাররফ হোসেন রুবেল, সাজ্জাদুল হক, আলাউদ্দিন বাবু, নাহিদুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান রানাকে ফেরান তিনি। রূপগঞ্জের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৮ রান করেন সাজ্জাদুল হক। ৫৫ বলে ৪টি চার ও ২ট ছক্কার সাহায্যে এ রান করেন তিনি।

এছাড়া আসিফ আহমেদ রাতুল করেন ৪০ রান। আগের ম্যাচের সেরা মোহাম্মদ মিঠুন করেন ৩১ রান। ৪২ রান খরচায় মাশরাফি একাই তুলে নেন ৬টি উইকেট। শেষ পর্যন্ত এই বিধ্বংসী বোলিংয়ের জন্য ম্যাচসেরা হয়েছেন নড়াইল এক্সপ্রেস।

১৯২ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে কলবাগান ক্রীড়া চক্র ৩৫.৪ ওভারে ১২৭ রান সংগ্রহ করার পর মাঠে বৃষ্টি নামে। এরপর মাঠ খেলার অনুপযোগী হয়ে পড়লে ডিএল মেথডে ম্যাচে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। ফলে ১০ রানে জয় পায় মাশরাফিরা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৩ রান করে করেন জসীমউদ্দিন ও রোহান প্রেম। এছাড়া তানভীর হায়দার ২৪ রানে অপরাজিত থাকেন। রূপগঞ্জের পক্ষে ১৩ রানে ২টি উইকেট নিয়েছেন আলাউদ্দিন বাবু।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts