শৃঙ্খলা ভেঙেছেন রুবেল হোসেন!

শৃঙ্খলা ভেঙেছেন রুবেল হোসেন!
Share Button

বিশ্বকাপের মঞ্চে পেসার রুবেল হোসেন কেন ছিলেন না? – উত্তর ‘ইনজুরি’। ব্যাপারটা পুরোপুরি না হলেও আংশিক সত্য। তবে, বিশ্বকাপের প্রাথমিক দলেও না থাকার একমাত্র কারণ ইনজুরি নয়, ছিল শৃঙ্খলাজনিত সমস্যাও।

রুবেলের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এক সংবাদ সম্মেলনে জানান।

শৃঙ্খলা বলতে, ইনজুরি পরিচর্যায় ফিজিওর দেয়া নির্দেশনা অমান্য করেছেন তিনি। এমন কি নিজের দোষ এড়াতে ফিজিও বায়েজিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে ভুল চিকিৎসার অভিযোগ আনতে চেয়েছিলেন ২৬ বছর বয়সী এ বোলার।

ফিজিও বাধ্য হয়েই বিসিবিকে সত্য ঘটনা জানান। শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে রুবেলকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয় বিসিবি। নির্ভরযোগ্য একটি সূত্রের বরাত দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, তাকে জাতীয় দলে না নেয়ার জন্য মৌখিক নির্দেশনাও দেয় বোর্ড। কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকেও বাদ দেয়া হয়।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, জাতীয় দল নির্বাচকরা চুক্তিতে রুবেলের নাম প্রস্তাব করেছিলেন। তবে, প্রধান কোচ চান্দিকা হাতুরুসিংহে নেতিবাচক রিপোর্ট দেয়ায় তালিকা থেকে রুবেলের নাম কেটে দেয়া হয়।

বিসিবির সর্বশেষ কার্যনির্বাহী সভা শেষে সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সাংবাদিকদের জানান, শৃঙ্খলাজনিত কারণেই তাকে চুক্তিতে রাখেননি তারা।

নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, চুক্তির আলোচনা উঠতেই রুবেলকে নিয়ে আপত্তি জানান জাতীয় দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন। রুবেল অনুশীলনে ফাঁকি দেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। সভায় উপস্থিত কয়েকজন পরিচালক তখন ডানহাতি এ পেসারকে চুক্তিতে না রাখার ব্যাপারে মত দেন।

রুবেল শনিবার জানান, বিসিবির কারণ দর্শানো নোটিশের জবাব দিয়েছেন তিনি। নিজের ভুল স্বীকার করে সুশৃঙ্খল হওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন। অবশ্য বিসিবি রুবেলের চিঠির উত্তরে সন্তুষ্ট হয়েছে কিনা জানা যায়নি।

বোর্ডের ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান ও সাবেক অধিনায়ক আকরাম খানকে এ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘রুবেলের চিঠি নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। এক বা দুই দিনের মধ্যেই আলোচনা করব।’

বিসিবির অন্য একটি সূত্রে জানা গেছে, রুবেলকে ক্ষমা করে দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি! এটা মৌখিক সিদ্ধান্ত বলেই জানান ওই কর্মকর্তা। ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের প্লেয়ার ড্রাফটে রাখা হয়েছে রুবেলকে।

‘এ’ শ্রেণীতে ২০ লাখ টাকা সম্মানী নির্ধারণ করা হয়েছে তার। খেলার জন্য রুবেল এখন ফিট। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চলাকালে বিসিবি হাইপারফরম্যান্স ইউনিটের ফিজিও এবং ট্রেনারের অধীনে ইনজুরি পুনর্বাসন করেছেন।

জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজিদ জানান, দুই সপ্তাহ হল ফিটনেসের ছাড়পত্র পেয়েছেন রুবেল। তিনি বলেন, ‘এইচপি থেকে রিপোর্ট দিয়েছি। ম্যাচ খেলার জন্য প্রস্তুত রুবেল।’

কেন্দ্রীয় চুক্তিতে না রাখায় টাকার দরদটা ভালোই বুঝতে পারছেন রুবেল, ‘চুক্তিতে নেই। লিগ না খেললে এ বছর আয়-রোজগার কিছুই হবে না। ঢাকা লিগটা খুব ভালোমতো খেলতে হবে।

চেষ্টা করব ইনজুরিমুক্ত থেকে ভালো খেলে জাতীয় দলে ফিরতে। ভারত এবং ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ আছে সামনে। ম্যাচগুলো খেলতে চাই। জাতীয় দলে থাকলে আবার চুক্তিতে আসতে পারব।’ সূত্র : প্রিয়

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts