শ্রীলঙ্কাকার বিপক্ষে পাকিস্তানের সান্ত্বনার জয়

পাকিস্তানের সান্ত্বনার জয়

ফাইনালের হিসাব-নিকাশ আগেই চুকেবুকে গেছে। বাংলাদেশ ও ভারত জায়গা করে নিয়েছে এশিয়া কাপ টি২০ ক্রিকেটের ফাইনালে; পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কাকে দর্শক হয়ে দেখতে হবে শিরোপার সেই লড়াই। এরপরও নিয়ম রক্ষার তাগিদেই শুক্রবার মাঠে নামতে হয়েছিল পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কাকে।

আর সেই নিয়ম রক্ষার ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৬ উইকেটে হারাল পাকিস্তান। এই জয়ের সুবাদে ৪ ম্যাচে ২ জয়ের মুখ দেখল পাকিস্তানিরা। আর ৪ ম্যাচ খেলে কেবল আরব আমিরাতের বিপক্ষে পাওয়া জয় নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হল গত এশিয়া কাপের শিরোপাজয়ী শ্রীলঙ্কাকে।

পাকিস্তানকে জয়ের জন্য ১৫১ রানের টার্গেট দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। জবাবে ১৯.২ ওভারে ৬ উইকেট হাতে রেখেই লক্ষ্য ছুঁয়েছে পাকিস্তান।

দুই দলের এই রং হারানো ম্যাচে টস জিতেছে পাকিস্তান। মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের পিচ ও কন্ডিশন বিবেচনায় টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাকিস্তানের অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি।

শ্রীলঙ্কার হয়ে ইনিংস ওপেন করেছেন দিনেশ চান্দিমাল ও তিলকরত্নে দিলশান।

আগের ম্যাচগুলোতে ভালো করতে না পারলেও এই ম্যাচে জ্বলে উঠেছেন শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনার। ১৪ ওভার শেষে লঙ্কানদের সংগ্রহ ছিল বিনা উইকেট ১১০ রান। অবশ্য এরপর ঘন ঘন উইকেট হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা। শেষ অব্দি নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৫০ রান তুলেছে লঙ্কানরা।

শ্রীলঙ্কার পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৫ রান (৫৬ বলে) করে অপরাজিত থাকেন ওপেনার দিলশান। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫৮ রান (৪৯ বলে) করেছেন চান্দিমাল। পাকিস্তানের পক্ষে ২ উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ ইরফান। এ ছাড়া ১টি করে উইকেট নিয়েছেন ওয়াহাব রিয়াজ ও শোয়েব মালিক।

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২৩ রানে প্রথম উইকেট হারায় পাকিস্তান। তবে উমর আকমল, সরফরাজ আহমেদ ও সারজিলের খানের ব্যাটিং দৃঢ়তায় জয় পেতে খুব বেশি সমস্যা হয়নি পাকিস্তানের। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৮ রান (৩৭ বলে) করেছেন আকমল।

এবারের এশিয়া কাপে রাউন্ড রবিন লিগে এটাই শেষ ম্যাচ। আগেই ফাইনালের দুই দল নির্ধারিত হয়ে যাওয়ায় পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচটি গুরুত্ব হারিয়েছিল আগেই। এরপরও অবশ্য মর্যাদার বিষয়টি ছিল। আর সেই মর্যাদার লড়াইয়ে জয়ী হিসেবেই মাঠ ছেড়েছে পাকিস্তান।

শ্রীলঙ্কাকে মেনে নিতে হয়েছে আরেকটি হারের যন্ত্রণা।

ম্যাচটি শুরু হয়েছিল বাংলাদেশ সময় শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। ইনজুরির কারণে এই ম্যাচেও খেলতে পারেননি শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গা। তার পরিবর্তে আগের ম্যাচগুলোতে দলকে নেতৃত্ব দেওয়া অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসও ছিলেন না পাকিস্তানের বিপক্ষে।

তিনিও ইনজুরিতে পড়েছেন। লঙ্কানদের নেতৃত্ব দিয়েছেন দিনেশ চান্দিমাল।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment