সেমিফাইনালে জুনিয়র টাইগাররা

সেমিফাইনালে জুনিয়র টাইগাররা
Share Button

 

কোয়ার্টার ফাইনালের বাধা পেরিয়ে সেমিফাইনালে বাংলাদেশের যুবারা। আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে নেপালের বিপক্ষে ৬ উইকেটের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ।

মিরপুরের শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে শুক্রবার সকালে কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হয় নেপাল-বাংলাদেশ। টসে জিতে নেপাল ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে তারা সংগ্রহ করে ২১১ রান।

জবাবে ২১২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ৬ ওভার কোনোরকম তাড়াহুড়ো করেনি বাংলাদেশ দল। পিনাক ঘোষ ও সাইফ হাসানের ওপেনিং জুটিতে আসে মাত্র ১৭ রান। সপ্তম ওভারে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন ধীরলয়ে খেলা সাইফ হাসান। আউট হওয়ার আগে তিনি করেন ২১ বলে ৫ রান। ৫৪ বলে ৩২ রান করে রান আউট হন পিনাক ঘোষ। চারে নেমে দলের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান নাজমুল হাসান শান্ত মাত্র ৬ বলে ৮ রান করেই সাজঘরে ফিরে যান। ২৮ ওভারে আউট হয়ে ফিরে যান দলের আরেক নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান জয়রাজ শেখও। তিনি দলের মোড় ঘুরানোর চেষ্টা করলেও ধামালার বলে এলবিডব্লিউতে তার ইনিংস থেমে যায়। আউট হওয়ার আগে তিনি ৬৭ বলে ৩৮ রান করেন।

পঞ্চম উইকেটে নেমে জুটি গড়েন জাকির হাসান ও অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ। তাদের জুটি থেকে দলে রান আসে ১১৭। জাকির হাসান দলের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেন। তিনি ৭৭ বলে ৭৫ রানের চমৎকার একটি ইনিংস উপহার দেন। ইনিংসটি তিনি পাঁচটি চার ও একটি ছয়ে সাজিয়েছেন। পিছিয়ে থাকেননি অধিনায়ক মিরাজও। তিনিও ৬৫ বলে ৫৫ রান করেন।

জাকির ও মিরাজের ব্যাটে ভর করে দলের জয় নিশ্চিত হয়।

নেপালের হয়ে দুটি উইকেট নিয়েছেন সুনীল ধামালা এবং একটি উইকেট নিয়েছেন লামিচানে।

প্রথম তিন ম্যাচে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ দল। দক্ষিণ আফ্রিকা, স্কটল্যান্ড ও নামিবিয়ার বিপক্ষে দাপুটে জয় পেয়েছে বাংলার বাঘেরা। আজ নিশ্চিত করেছে সেমিফাইনাল।

বাংলাদেশ ১১ ফেব্রুয়ারি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তান ম্যাচে বিজয়ী দলের বিপক্ষে সেমিতে মুখোমুখি হবে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment