হাসান আলী-শোয়েব মালিকে জিতলো কুমিল্লা

হাসান আলী

বোলিংয়ে হাসান আলীর তোপে পড়ে মাত্র ১২৮ রানেই গুটিয়ে যায় ঢাকা ডায়নামাইটস। এরপর ব্যাটিংয়ে শোয়েব মালিকের দৃঢ়তায় জয় পায় কুমিল্লা।

ব্যাট হাতে তামিম উড়ন্ত শরু করলেও ঢাকার বোলারদের তোপে পরে একের পর এক উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় কুমিল্লা। তবে শেষ পর্যন্ত ইমরুল কায়েস, ব্রাভো ও বাটলার সঙ্গ দেয়ায় দলকে জয়ের বন্দরে নিতে সক্ষম হন পাকস্তানি ওলরাউন্ডার শোয়েব মালিক।

ম্যাচ সেরা হয়েছেন ২০ রান দিয়ে ৫ উইকেট নেয়া হাসান আলী।

এর আগে প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে পাকিস্তানী পেসার হাসান আলীর গতিঝড়ে মাত্র ১২৮ রানেই গুটিয়ে গেছে তারকাখচিত সাকিব আল হাসানের দল।

মিরপুরে টসে জিতে ব্যাটিং নিয়ে শুরুর দিকেই ধাক্কা খেয়েছিল ঢাকা ডাইনামাইটস। হাসান আলীর জোড়া আঘাতে ১২ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারিয়ে বসেছিল তারা। তবে ওপেনিংয়ে নেমে ঝড় তুলেছেন সুনিল নারিন। মাত্র ৩০ বলে ফিফটি তুলে নিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই অলরাউন্ডার।
শেষ পর্যন্ত বিধ্বংসী নারিন ৪৫ বলে ৭৬ রান করে আউট হয়েছেন। ৭ চার আর ৫ ছক্কায় সাজানো তার টর্নোডো ইনিংসটির পরিসমাপ্তি ঘটিয়েছেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। তামিম ইকবালের ক্যাচ হয়ে সাজঘরে ফেরেন নারিন।

এরপরই তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ে ঢাকার ইনিংস। কুমার সাঙ্গাকারা (৩০ বলে ২৮ রান) আর কাইরন পোলার্ড (১) রানআউটে কাটা পড়েন। হাসান আলীর তৃতীয় শিকার হয়ে ফিরেন মোসাদ্দেক হোসেন (১)। মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের শিকার হওয়ার আগে অধিনায়ক সাকিব আল হাসান করেন মাত্র ৩ রান।

ঢাকা ডাইনামাইটসের ইনিংসের শুরুতে এক ওভারেই এভিন লুইস (২) এবং মেহেদী মারুফকে (০) সাজঘরে ফেরান হাসান আলী। পাকিস্তানি পেসার পরে ফিরিয়েছেন আরও তিন ব্যাটসম্যানকে। প্রত্যেকেই হয়েছেন বোল্ড। সবমিলিয়ে ২৩ রানে ৫টি উইকেট নেন হাসান আলী। দুটি উইকেট মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের। একটি নিয়েছেন রশিদ খান।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts