‌‌‌’তাসকিন নয়, বুমরার বোলিং অবৈধ’

তাসকিন নয় বুমরার বোলিং অবৈধ

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটাকে অনেকেই প্রতিবাদের একটি মোক্ষম অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছেন। টি২০ বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচের পর তাসকিন আহমেদ এবং আরাফাত সানির বোলিং অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে আইসিসি থেকে। ফলে ক্রিকেট অঙ্গনের পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যাচ্ছে।

তাসকিনের বোলিং অ্যাকশন যদি অবৈধ হয় তাহলে ভারতের জাসপ্রিত বুমরার বোলিং অ্যাকশনকেও সন্দেহের তালিকায় আনা উচিত বলে মনে করছেন অনেকেই। এ দু’জন বোলারের ছবি পাশাপাশি রাখলে দেখা যায় তাসকিনের থেকে অনেক বেশি বেঁকে যায় বুমরার কনুই। যেখানে আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী ১৫ ডিগ্রির বেশি কনুই বাঁকানো যাবে না।

ফেসকুকে অনেকেই দাবি করছেন, বুমরার বোলিংয়ে যদি কোনো সমস্যা না থাকে তবে বাংলাদেশের এ দুই বোলারেরও কোনো সমস্যা থাকার কথা নয়।

জনতা ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছেন, ‘তাসকিন ও সানির অ্যাকশন যদি সন্দেহযুক্ত হয় তবে ইন্ডিয়ার বুমরাহ আর অশ্বিনের বোলিং কি দুধে ধোয়া তুলসি পাতা!!!! হায়রে ইন্ডিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল!!! ধিক্কার জানাই ইন্ডিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল নামের কলঙ্ক আইসিসিকে….বাংলাদেশের ক্রিকেটকে ধ্বংস করার চক্রান্ত চলছে…’

এ ছাড়াও আরেকজন ভক্ত তাসকিন ও বুমরার ছবি পাশাপাশি দিয়ে লিখেছেন, ‘ভারত ছাড়া অন্য যে কোনো দেশের বোলারের অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ পোষণ করতে পারে আইসিসি।’

নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী লিখেছেন, ‘বিনোদিত করার জন্য আইসিসিকে ধন্যবাদ। (তালি হবে, মৃদু, কনুই না বাঁকিয়ে। কনুই বাঁকা হলেও গোড়ালি বাঁকা করা যাবে না)।’

এ ছাড়া শেম আইসিসি নামের একটি হ্যাশট্যাগের ছড়াছড়িও দেখা যাচ্ছে ফেসবুকে। আনিসুল হকের ফেসবুক আইডিতে লেখা আছে, ‘আইসিসি, আমাদের বোলার নয়, তোমাদের কার্যক্রম অবৈধ!!#শেমঅনআইসিসি

আরও অনেকে তাদের প্রতিক্রিয়া এ ভাবেই ব্যক্ত করেছেন। আইসিসির এ সিদ্ধান্তকে কেউই মেনে নিতে পারছেন না। গত এক বছর ধরে তাসকিন ও সানির অ্যাকশন নিয়ে কোনো প্রশ্ন উঠল না। কিন্তু হঠাৎ করেই টি২০ বিশ্বকাপে এমন অভিযোগ সবাইকে অবাক করেছে।





বাংলাদেশের প্রধান কোচ হাথুরুসিংহে তো সরাসরি বলেই দিয়েছেন তার বোলারদের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই, সমস্যা আইসিসির মধ্যেই।

আগামী সাত দিনের মধ্যে তাসকিন ও সানিকে আইসিসি নিয়ন্ত্রিত কোনো ল্যাবে গিয়ে পরীক্ষা দিতে হবে। তবে তার আগ পর্যন্ত তারা খেলা চালিয়ে যেতে পারবেন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

Related posts

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.