‘উড়তা পঞ্জাব’ নয়, এবারে ধাক্কা খেল প্রাপ্তবয়স্কদের ছবি ‘কসমিক সেক্স’

ধাক্কা খেল প্রাপ্তবয়স্কদের ছবি ‘কসমিক সেক্স’
Share Button

সারা দেশ যখন ‘উড়তা পঞ্জাব’ এবং সেন্সরশিপ বিতর্কে উত্তাল, তখন চুপিসাড়ে একটি ছবিকে প্রকাশ অজানা কারণে বন্ধ রইল। অমিতাভ চক্রবর্তী পরিচালিত পুতুল মাহমুদ প্রযোজিত বাংলা ছবি ‘কমসিক সেক্স’-এর মুক্তি পাওয়ার কথাছিল ২৪ জুন ভারতের নন্দন-এ। সেইমতো পোস্টারও পড়ে গিয়েছিল শহরের এখানে ওখানে।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত রিলিজ হল না ‘কসমিক সেক্স’। পোস্টার দেখে নন্দন চত্বরে ইতিউতি ঘুরঘুর করা কিছু তরুণ মুখ চুন করে ফিরে এলেন।
কোথায় আটকাল ‘কমসিক সেক্স’? প্রযোজক পুতুল মহমুদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানালেন, ছবি দেখতে এসে ফিরে যাওয়া মানুষের মতো তিনিও বিস্মিত। ২০১৪-তেই এই ছবি নির্মিত হয়ে গিয়েছিল।

বাংলার মারিফতি দেহসাধনার উপরে আধারিত এই ছবিতে অবধারিতভাবেই এসেছে নগ্নতা। আর তা এসেছে খুব স্বাভাবিক এবং সাবলীলভাবেই। সুতরাং এই ছবির সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়া নিয়ে খানিকটা চিন্তা ছিলই। তার উপরে এই ছবিতে মারিফতি ইসলাম নিয়েও বিতর্কের সম্ভাবনা ছিল। সেই সব সমস্যা মেটাতে বেশ খানিকটা সময় চলে যায়। ২০১৫-এ ছবিটির আনসেন্সর্ড ভার্সন অফিসিয়ালি আইটাইম, গুগল প্লে ইত্যাদিতে রিলিজও করে। অবশ্য তার আগেই ২০১৪-এ ছবিটিকে সিবিএফসি ‘প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য’ হিসেবে চিহ্নিত করে ছাড়পত্র দেয়।

পুতুল জানালেন, সেন্সর্ড ভার্সনটির থিয়েট্রিক্যাল রিলিজের জন্য ডিস্ট্রিবিউটার পরিকল্পনা করে। সেই পরিকল্পনা মাফিকই নন্দনে ছবিটির রিলিজ করার কথা। পুতুল মাহমুদের কথায়, এই সপ্তাহের গোড়ার দিকে নন্দন কর্তৃপক্ষের তরফে তাঁরা একটি ফোন পান— কেউ জানান, ছবিটি নন্দনে প্রদর্শনে অসুবিধা রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

তাই ছবিটির প্রদর্শন বন্ধ রাখছে কর্তৃপক্ষ।

হতভম্ব পুতুল জানালেন, একটা ছবি সেন্সর সার্টিফিকেট পাওয়ার পরেও কীভাবে এহেন সিদ্ধান্ত হতে পারে?

এই প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায়নি।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts