টাঙ্গাইলের বাসাইলে বাসর রাতে যুবকের আত্মহত্যা

বাসর ঘর
Share Button

টাঙ্গাইলের বাসাইলে বাসর রাতে গলায় ফাঁস দিয়ে লিটন মিয়া (২৮) নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। শনিবার ভোরে ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত লিটন উপজেলার কাউলজানী ইউনিয়নের বাদিয়াজান গ্রামের মৃত আলাউদ্দিনের ছেলে।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, প্রায় আট মাস আগে লিটনের সঙ্গে তার খালাতো বোন সাবিনা আক্তারের (১৯) বিয়ে ঠিক হয়। পরে শুক্রবার বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে সাবিনাকে উঠিয়ে আনা হয়। নিয়মানুযায়ী রাতে তাদের ফুলসজ্জায় পাঠানো হয়। রাতের কোনো এক সময় লিটন ঘরের বাইরে যায়। রাতে আর ঘরে ফিরে না আসায় বাড়ির লোকজন অনেক খোঁজখুঁজির পর শনিবার ভোরে বাড়ির পাশে একটি গাছে লিটনের ঝুলন্ত মরদেহ পায়। স্থানীয় চেয়ারম্যান-মেম্বার ও এলাকার মাতব্বরদের পরামর্শ অনুযায়ী দুপুরের দিকে লিটনের মরদেহ দাফন করা হয় বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় থানায় কোনো মামলা হয়নি। মামলা ও ময়নাতদন্ত না করে মরদেহটি দাফন করা নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

এ বিষয়ে কাউলজানী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবিবুর রহমান চৌধুরী হবির ব্যক্তিগত মুঠোফোন বারবার যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে বাসাইল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নুরুল ইসলাম জানান, এ রকম কোনো ঘটনা তার জানা নেই।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts