স্ত্রীর গোপনাঙ্গে এসিড ঢেলে দিলো স্বামী

Acid violence
Share Button

রাজধানীর পশ্চিম কাফরুলে এক গৃহবধূর গোপনাঙ্গে এসিড ঢেলে দিয়েছে এক স্বামী। শুক্রবার ভোর ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় স্বামী পারভেজ মিয়াকে আটক করেছে আগারগাঁও থানা পুলিশ।

ভুক্তভোগীর খালাতো ভাই পাপ্পু মিয়া যুগান্তরকে জানান, নিষ্ঠুরতার শিকার ওই গৃহবধূ তার স্বামীর সঙ্গে আগারগাঁও থানার পশ্চিম কাফরুল এলাকায় ১৭৮/এ তিনতলা বাসার নীচতলা বাসায় ভাড়া থাকতেন। তাদের সাড়ে ৫ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। গৃহবধূর দর্জির কাজেই সংসার চলত।

তিনি জানান, স্বামী পারভেজ কোনও কাজকর্ম না করার কারণে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া লেগেই থাকতো। পারভেজ প্রায়ই শিমুকে মারধর করতো।

শুক্রবার ভোরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এরপর স্ত্রী ঘুমিয়ে পড়লে পারভেজ এসিড এনে তার গোপনাঙ্গে ঢেলে দেয়। স্ত্রীর আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসেন। পরে তারা পারভেজকে আটক করে আগারগাঁও থানা পুলিশে দেন।

এদিকে পাপ্পু শিমুকে নিয়ে ভোর সাড়ে ৫টার দিকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে আগারগাঁও প্রবীণ হাসপাতালে আসেন। ছুটির দিন হওয়ায় সেখানে কোনো চিকিৎসক পাওয়া যায়নি। এরপর সাড়ে ৬টার দিকে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেলে এসেও কোনো চিকিৎসক পাননি তারা।

এ অবস্থায় সকাল সাড়ে ৮টার দিকে শিমুকে আনা হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। জরুরি বিভাগের কাউন্টার থেকে টিকেট নিয়ে তারা আসেন বার্ন ইউনিটে। কিন্তু এখানেও চিকিৎসা দেয়ার মতো কোনো চিকিৎসক পাননি তারা।

পরে সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত অপেক্ষা করে ব্যর্থ মনোরথে তারা বাসায় ফিরে যান। স্থানীয় ফার্মেসি থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে এখন বাসায় অবস্থান করছেন বলে জানিয়েছেন পাপ্পু।

পাপ্পু অভিযোগ করে বলেন, তিনটি সরকারি হাসপাতাল ঘুরলাম। কোনো হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা পেলাম না। এটি সত্যিই দুর্ভাগ্যজনক। ছুটির দিন বলে কী হাসপাতালে ডাক্তার থাকবে না?

আগারগাঁও থানার এসআই নিপেন্দ্র নাথ বিশ্বাস ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অভিযুক্ত পারভেজকে আটক করা হয়েছে। সে পুলিশকে জানিয়েছে, স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়ার এক পর্যায়ে মোটর সাইকেলের ব্যাটারি থেকে এসিড নিয়ে স্ত্রীর গোপনাঙ্গে মেরেছে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts