নামাজ কাজা হলে আদায় করার নিয়ম

সালাত আদায়ের নিয়ম

প্রশ্ন : অনেক নামাজ কাজা হলে এগুলো আদায়ের পদ্ধতি কী? উত্তর : মেয়েদের ১২ বছর এবং ছেলেদের ১৪ বছর হওয়ার পর থেকে নামাজ ছুটে গিয়ে থাকলে, ছুটে যাওয়া নামাজের আনুমানিক একটা হিসাব লাগাতে হবে। হিসাব অনুপাতে ছুটে যাওয়া নামাজের কাজা করতে হবে। যত দ্রুত এবং যত বেশি সম্ভব এই কাজাগুলো আদায় করতে হবে। প্রতি ওয়াক্তে কয়েক ওয়াক্তের কাজা আদায় করলেও ভালো। এ ছাড়া সুবিধামতো সময়ে যখন যে নামাজের কাজা আদায়ের সুযোগ হয় আদায় করা যাবে। তবে প্রতি ওয়াক্তে ওই ওয়াক্তের কাজা আদায় করলে হিসাব রাখা সহজ। এভাবে আদায়কৃত নামাজ আনুমানিক…

Read More

বিদআতের পরিনাম ভয়াবহ

ড. মাওলানা আবুল কালাম আজাদ বাশার

১. রাসূল সা, বলেছেন,বিদআত সর্ব নিকৃষ্ট কাজ,(মুসলিম)। ২. রাসূল সা, বলেছেন, যে ব্যক্তি বিদআত তৈরি করে অথবা বিদআতিকে সহযোগিতা করে, তার উপর আল্লাহ, ফেরেস্তাকুল ও মানব মণ্ডলীর অভিশাপ, (বুখারী)। ৩. রাসূল সা, বলেছেন, আল্লাহ বিদআতির রোজা, নামাজ, সাদাকাহ, হাজ্জ, ওমরাহ, জিহাদ এবং তার ভাল কোন আমলই কবুল করেন না, যতক্ষণ না সে বিদআত পরিত্যাগ করে। সে দ্বীন থেকে বেরিয়ে যায়, যেমনি ভাবে খামির থেকে চুল বেরিয়ে যায়, (ইবনু মাযাহ)। ৪. রাসূল সা, বলেছেন, যে ব্যক্তি কোন বিদআতিকে সম্মান করবে, সে দ্বীন ধবংসের কাজে সাহায্য করলো, (বায়হাকী)। ৫. আব্দুল্ললাহ ইবনু ওমর…

Read More

পর্দা শুধু নারীর জন্য নয়, পুরুষের জন্যও ফরজ

পর্দা শুধু নারীর জন্য নয়, পুরুষের জন্যও ফরজ

নারী ও পুরুষ উভয়ের জন্যই পর্দা পালন করা ফরজ। ইসলামে উভয়কেই পর্দা পালনের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। পর্দা পালন করা মুসলিম নারীর অনন্য রুচিবোধ ও সৌন্দর্যের বহিঃপ্রকাশ। পর্দা পুরুষের উন্নত চরিত্র গঠনের মাধ্যম; পাশাপাশি নারীর মান-সম্মান, ইজ্জত-আবরুর রক্ষাকবচও বটে। আল্লাহ তাআলা নারী ও পুরুষদের প্রতি পর্দা পালনের বিষয়টি কুরআনুল কারিমে সুস্পষ্ট ভাষায় ঘোষণা করেছেন। আল্লাহ তাআলা বলেন- ‘(হে নবি! আপনি) মুমিন (পুরুষদের) বলে দিন, তারা যেন তাদের দৃষ্টিকে নিচু করে এবং লজ্জাস্থানের হেফাজত করে, এটা তাদের জন্য অধিকতর পবিত্র। তারা যা কিছু করে আল্লাহ সে বিষয়ে অবগত। এবং (হে নবি!…

Read More

মানুষ মৃত ব্যক্তির যে ডাক শুনতে পায় না

মানুষ মৃত ব্যক্তির যে ডাক শুনতে পায় না

আল্লাহ তাআলার ঘোষণা, ‘পৃথিবীর প্রতিটি জীবনকেই একদিন মৃত্যুবরণ করতে হবে।’ সে হিসেবে মানুষও একদিন মারা যাবে। মানুষ মৃত্যুর পর জীবত মানুষদেরকে লক্ষ্য করে কথা বলে এবং বলবে; কিন্তু মানুষ মৃতব্যক্তির সে কথা শুনতে পায় না। মৃতব্যক্তিকে দাফন করতে নেয়ার পথে বা কবরের পাশে মানুষ ছাড়া যে সব জীব-জন্তু থাকে, তারা মৃত ব্যক্তির সে সব কথা শুনতে পায়। হাদিসে এ ব্যাপারে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়া বলেন- হজরত আবু সাঈদ খুদরি রাদিয়াল্লাহ আনহু রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে বর্ণনা করেছেন, তিনি বলেন, যখন মৃত ব্যক্তিকে পুরুষেরা তাদের কাঁধে করে নিয়ে যায়,…

Read More

জুমআর দিনের ফজিলত ও মর্যাদা

জুমআর দিনের ফজিলত ও মর্যাদা

ইয়াওমুল জুমআ বলতে জুমআর দিন বা শুক্রবারকে বোঝায়। এ দিনের ফজিলত ও মর্যাদা অনেক বেশি। হাদিসের বর্ণনা মতে, সপ্তাহের অন্যান্য দিনের চেয়ে শ্রেষ্ঠত্ব ও মর্যাদার দিক থেকে জুমআর দিন অনেক মর্যাদাবান একটি দিন। এ দিনের রয়েছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ফজিলত। যার বর্ণনায় রয়েছে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের অনেক উপদেশ। জুমআর দিনের মর্যাদা ও প্রাপ্তি নিয়ে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের একটি গুরুত্বপূর্ণ হাদিস তুলে ধরা হলো- عَنْ أَبِي هُرَيرَةَ رضي الله عنه، قَالَ : قَالَ رَسُول الله ﷺ: «مَنْ تَوَضَّأَ فَأَحْسَنَ الوُضُوءَ، ثُمَّ أَتَى الجُمُعَةَ فَاسْتَمَعَ وَأنْصَتَ غُفِرَ لَهُ مَا…

Read More

কোরআন প্রতিদিন : সুরা আন্ নূর, আয়াত ৫১-৫৫।

al-quran

৫১.) মু’মিনদের কাজই হচ্ছে, যখন তাদেরকে আল্লাহ‌ ও রসূলের দিকে ডাকা হয়, যাতে রসূল তাদের মোকদ্দমার ফায়সালা করেন, তখন তারা বলেন, আমরা শুনলাম ও মেনে নিলাম। এ ধরনের লোকেরাই সফলকাম হবে।   ৫২.) আর সফলকাম তারাই যারা আল্লাহ‌ ও রসূলের হুকুম মেনে চলে এবং আল্লাহকে ভয় করে এবং তাঁর নাফরমানী করা থেকে দূরে থাকে।     ৫৩.) এ মুনাফিকরা আল্লাহর নামে শক্ত কসম খেয়ে বলে, “আপনি হুকুম দিলে আমরা অবশ্যই ঘর থেকে বের হয়ে পড়বো।” তাদেরকে বলো, “কসম খেয়ো না, তোমাদের আনুগত্যের অবস্থা জানা আছে। তোমাদের কার্যকলাপ সম্বন্ধে আল্লাহ‌ বেখবর নন।…

Read More

বিয়ের পর একসঙ্গে স্বামী-স্ত্রীর নামাজ

বিয়ের পর একসঙ্গে স্বামী-স্ত্রীর নামাজ

নববিবাহিত স্বামী-স্ত্রীর প্রথম সাক্ষাতে করণীয় হলো যে, স্বামী তার স্ত্রীর মাথায় হাত রেখে দোয়া করবে। আর মুসতাহাব হলো স্বামী-স্ত্রী উভয়ে একসঙ্গে দু’রাকাআত নামাজ আদায় করবে। এটা সলফে সালেহীনদের থেবে বর্ণিত রয়েছে। তাছাড়া এ সম্পর্কে হাদিসে এসেছে- হজরত আবু উসাইদ মাওলা আবু সাইদ থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, ‘আমি দাস অবস্থায় বিয়ে করলাম। অতঃপর রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সাহাবাদের (রাদিয়াল্লাহু আনহুম) একটি ছোট দলকে দাওয়াত দিলাম। তাদের মধ্যে হজরত ইবনে মাসউদ, আবু যার এবং হুজাইফা রাদিয়াল্লাহু আনহুমও উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, নামাজের ইক্বামাত দেয়া হলো। তিনি বলেন, হজরত আবু যার রাদিয়াল্লাহু…

Read More

গোনাহ সম্পর্কে রাসুলুল্লাহর (সা.) বর্ণনা

সবচেয়ে বড় গোনাহ

হজরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাদিয়াল্লাহু আনহু সবচেয়ে বড় গোনাহ সম্পর্কে জানতে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে প্রশ্ন করেন। বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তার প্রশ্নের উত্তরে মুসলিম উম্মাহর জন্য নসিহতস্বরূপ একটি গুরুত্বপূর্ণ হাদিস বর্ণনা করেন। যা তুলে ধরা হলো- হজরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি জিজ্ঞাসা করলাম হে আল্লাহর রাসুল! (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) সবচেয়ে বড় গোনাহ কোনটি? তিনি বললেন, কাউকে আল্লাহর সমকক্ষ স্থির করা। অথচ তিনিই তোমাকে সৃষ্টি করেছেন। অতঃপর তিনি বললেন, তারপর কোনটি? রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, তোমার সঙ্গে খাবে, এ…

Read More

কিয়ামত পর্যন্ত রুহ কোথায় থাকবে?

আল্লাহ তাআলা কুরআনে ইরশাদ করেন, ‘এ মাটি থেকেই আমি তোমাদেরকে সৃষ্টি করেছি, এতেই তোমাদেরকে ফিরিয়ে দেব এবং পুনরায় এ থেকেই আমি তোমাদেরকে উত্থিত করব।’ (সুরা ত্বাহা : আয়াত ৫৫) আল্লাহ তাআলা সব মানুষের রুহকে সৃষ্টি করে ‘আলমে আরওয়াহ’তে রেখেছেন। সেখান থেকে সময়ের ব্যবধানে পর্যায়ক্রমে এ পৃথিবীতে পাঠিয়েছেন। মানুষ তার নির্দিষ্ট জীবন অতিবাহিত করার পর মৃত্যুর মাধ্যমে কিয়ামত পর্যন্ত আলমে বরজাখ তথা অন্তর্বর্তীকালীন জীবন বা কবরের জীবনে অবস্থান করবে। কিয়ামতের পর হাশরের ময়দানে মানুষের বিচার কার্যক্রম পরিচালিত হবে। সেদিন বিচার পরিচালনা করবেন স্বয়ং আল্লাহ তাআলা। হাশরের ময়দানের ফয়সালা অনুযায়ী মানুষের চিরস্থায়ী…

Read More

কখন কিয়ামত অনুষ্ঠিত হবে?

কিয়ামতের নিদর্শনগুলো যখন সংঘটিত হতে থাকবে; তখন তা একটার পর একটা ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ হতে থাকবে। কিয়ামতের সর্ব প্রথম যে বড় আলামতটি প্রকাশ পাবে, তা হলো আগুন নির্গমন। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কিয়ামতের নিদর্শনগুলো প্রকাশের ব্যাপারে হাদিসে একটি চমৎকার উদাহরণ পেশ করেছেন- তিনি ঘটনাটি এভাবে বর্ণনা করছেন যে, ‘পুঁতির মালার বাঁধন খুলে গেলে যেমন দানাগুলো পর্যায়ক্রমে একটির পর অপরটি বেরিয়ে আসতেই থাকে; তেমনি (কিয়ামতের) নিদর্শনগুলোর প্রকাশ পরস্পর ধারাবাহিকভাবে ঘটতেই থাকবে।’ (ইবনে হাব্বান, সহিহ জামে) তারপরও রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর উম্মতকে কিয়ামত অনুষ্ঠিত না হওয়া সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন। হজরত…

Read More